• প্রচ্ছদ » শেষ পাতা » [১]মানবাধিকারকর্মীরা বলছেন, সামাজিক অবক্ষয়ে বিয়েবহির্ভূত সম্পর্কে জড়াচ্ছে নারী-পুরুষ, বাড়ছে নবজাতক ফেলে দেওয়ার ঘটনা [২]পরিবার ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যৌন শিক্ষা প্রদানের পরামর্শ


[১]মানবাধিকারকর্মীরা বলছেন, সামাজিক অবক্ষয়ে বিয়েবহির্ভূত সম্পর্কে জড়াচ্ছে নারী-পুরুষ, বাড়ছে নবজাতক ফেলে দেওয়ার ঘটনা [২]পরিবার ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যৌন শিক্ষা প্রদানের পরামর্শ

আমাদের নতুন সময় : 20/01/2021

শাহীন খন্দকার: [৩] বাংলাদেশ হিউম্যান রাইটস ফাউণ্ডেশনের প্রধান নির্বাহী অ্যাডভোকেট এলিনা খান বলেন, ডিজিটাল যুগে ফোনালাপ ও ইন্টারনেট সুবিধা সহজলভ্য হবার কারণে পুরুষ কিংবা নারী সহজেই অনৈতিক সর্ম্পকে জড়িয়ে পড়ছে। এরই ফলশ্রুতিতে জন্ম নেয় অপ্রত্যাশিত শিশু। [৪] তিনি বলেন, এধরনের ঘটনা গৃহকর্মীদের সাথেও ঘটছে। অনাকাঙ্খিত শিশুগুলোর ঠিকানা হয়ে উঠছে ডাস্টবিন, ফুটপাত, ঝোপ ও শৌচাগার। অসহায় এসব শিশুর জন্য বাংলাদেশে সমাজ সেবা অধিদপ্তরের ৬ বিভাগে ৬টি ছোটমণি নিবাস রয়েছে। প্রয়োজনের তুলনায় তা খুবই অপ্রতুল হলেও এসব স্থানেও যোগাযোগ করে শিশুদের রাখা যেতে পারে। এ বিষয়ে সমাজকে দায়িত্ব নিতে হবে। সবাইকে সচেতন হবে। [৫] বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের ডেপুটি রেজিষ্টার ডা. মীর্জা নাহিদা হোসেন বন্যা বলেন, সাধারণত অনৈতিক সর্ম্পকের ফসল এসব শিশু। কথিত বাবা-মার উচিত শিশুকে মৃত্যুর মুখে ঠেলে না দিয়ে সরাসরি সংস্থাগুলোর সঙ্গে যোগাযোগ করা। [৬] বন্যা বলেন, উচ্চবিত্তের ক্ষেত্রে এ উদাহরণ থাকলেও নিম্নবিত্ত এবং ভবঘুরে মানুষদের সেই সর্তকতা নেই। কিন্ত বাস্তব হলেও সত্যি যে এসব নবজাতকের দায়িত্ব সমাজকেই নিতে হবে। সম্পাদনা: রায়হান রাজীব




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]