• প্রচ্ছদ » » চিকিৎসা বিজ্ঞানের উপর ভরসা রাখছি প্রথম সুযোগেই ভ্যাকসিন নেবো


চিকিৎসা বিজ্ঞানের উপর ভরসা রাখছি প্রথম সুযোগেই ভ্যাকসিন নেবো

আমাদের নতুন সময় : 23/01/2021

গৌতম চক্রবর্তী : আমি ব্যক্তিগতভাবে ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে অংশ নিতে পারলে খুশি হতাম। সেই সুযোগ আসেনি কিংবা খানিক কুঁড়েমির জন্যও হয়নি। এখন ভ্যাকসিন চলে এসেছে। প্রথমে স্বাস্থ্যকর্মী তারপর বয়স্ক কম ইমিউনিটির মানুষদের দেওয়া হবে শুনলাম। তারপর সবার জন্য। সিদ্ধান্ত নিয়ে কিছু বলার নেই। তাড়াতাড়ি ভ্যাকসিন আসুক সবার জন্য, এই দুর্বিষহ সময়কালটা দ্রæত পেরিয়ে যাক। জীবনযাত্রা স্বাভাবিক হোক। আর একটা কথা, আমি প্রথম সুযোগেই এই ভ্যাকসিন নেবো। হ্যাঁ সামান্য কিছু সাইড এফেক্ট থাকতে পারে জেনেই নেবো।
করোনার প্রকোপ আমাদের দেশে আপাতত স্তিমিত। ট্রেনে প্রতিদিন প্যাসেঞ্জারি করা ভাইটাও কাল অবাক হয়ে বললো, করোনা মনে হয় চলেই গেছে। না হলে তার নিশ্চিতভাবেই করোনা হতো। হয়তো সত্যিই করোনা তার দ্রæত ছড়িয়ে পড়ার ক্ষমতা বা ঘাতক শক্তি হারিয়েছে। হয়তো নয়। এসব চিকিৎসা বিজ্ঞানীরা ভালো বলতে পারবেন। তবে শুনলাম করোনার নতুন দুইটা ঘাতক স্ট্রেন হাজির হয়েছে। যার একটার প্রকোপে ইউকেতে ফের লকডাউন শুরু হয়েছে। বহু মানুষ ফের হাসপাতালে। আজ বা কাল, এগুলো এদেশেও আসবে বা এসে গেছে। ভ্যাকসিন হয়তো এই স্ট্রেনগুলোর হাত থেকে আমাদের বাঁচাবে, নিদেনপক্ষে প্রতিরোধে সহায়তা করবে। ভ্যাকসিন তৈরি করেন বিজ্ঞানীরা, কোনো রাজনৈতিক দল নয়। আজ পর্যন্ত সকল ভ্যাকসিনেরই সাইড এফেক্ট দেখেছি। মাথাব্যাথা, জ্বর ইত্যাদি তো স্বাভাবিক। এসব জেনেই সবাই ভ্যাকসিন নেয়। আর গোটা ভারতে ভ্যাকসিনেশন শেষ না হলে জনজীবন স্বাভাবিক হবে না। মানুষ ভয় পাবে। মানুষের জীবিকার অনিশ্চয়তা থেকেই যাবে। অন্তত এটা কারণ মেনেও ভ্যাকসিন নেওয়া যেতে পারে। আমি ব্যক্তিগতভাবে চিকিৎসা বিজ্ঞানের উপর ভরসা রাখছি। ভরসা রাখছি চেনা-জানা সকল ডাক্তার বাবুদের মতামতের উপর। কারণ এটা তাঁদের সাবজেক্ট, তারাই এ ব্যাপারে শেষ কথা। তারা নির্দ্বিধায় ভ্যাকসিন নিলে আমার নিতে সামান্য সমস্যা নেই। পৃথিবীর নানা দেশের অনেক ভীতু রাষ্ট্রপ্রধানরা নির্দ্বিধায় ভ্যাকসিন নিচ্ছেন, দেশবাসীকে ভ্যাকসিন নিতে উদ্বুদ্ধ করছেন। কিন্তু আমাদের দেশের চিত্র একদম আলাদা। ভাবুন তো, আমাদের প্রধানমন্ত্রী আর স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী একযোগে ভ্যাকসিন নিয়ে একটা ‘মন কি বাত’ নামালে কি আমরা ফের থালাবাটি বাজাতে, মোমবাতি জ্বালাতে কার্পণ্য করতাম? আর কেউ কি কখনো তাদের সাহসিকতা নিয়ে প্রশ্ন তুলতে পারত? শুধু এই একটা ব্যাপারেই ভারী লজ্জা পেয়েছি। ফেসবুক থেকে




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]