তিন কারণে দেশের কর-জিডিপি অনুপাত অন্য অনেক দেশের তুলনায় কম

আমাদের নতুন সময় : 23/01/2021

ড. মোহাম্মদ আবদুল মজিদ : বাংলাদেশে কর-জিডিপি অনুপাত সমপর্যায়ের অনেক দেশের তুলনায় বেশ কম।
প্রথম কারণ: আওতার সীমাবদ্ধতা, পরিধিগত ঘাটতি। সকল যোগ্য করদাতা ও খাতকে করজালের মধ্যে আনতে পারার দীর্ঘসূত্রিতা বা ক্ষেত্র বিশেষে অপারগতা, অক্ষমতা।
দ্বিতীয় কারণ: ব্যাপক কর ছাড়, কর রেয়াত, কর ফাঁকি, মামলায় আটকানো, কর্তন কিংবা আদায়কৃত কর রাজস্ব সরকারি কোষাগারে জমা না হওয়া। তৃতীয় কারণ: রাজস্ব বিভাগের দক্ষ লোকবলের অভাব , অদক্ষতা, অপারগতা, মনিটরিংয়ের দুর্বলতা, কর আইন ও আহরণ ও প্রদান পদ্ধতির জটিলতা, মনোভঙ্গি পরিবর্তনের আবশ্যকতা। কর আহরণকারীর সাথে করদাতার দূরত্ব যতো কমবে ততো আস্থা গড়ে উঠবে, করারোহনের পালে হাওয়া লাগবে।
জিডিপি বা অর্থনীতির আকার বড় হচ্ছে, অথচ সক্ষম সকল করদাতা এবং প্রযোজ্য সকল খাত করজালের আওতায় আসেনি। ফলে কর-জিডিপি অনুপাত বাড়েনি। যেকোনো দেশে জিডিপির অন্তত ১৫-১৬ শতাংশ কর হিসেবে আহরিত হয়। কিন্তু এদেশে কর জিডিপির অনুপাত ১০-১১ শতাংশের মধ্যে দীর্ঘদিন ঘোরাফেরা করছে। এর মানে হয় জিডিপির বৃদ্ধি কাগজে কলমে (কাজির খাতায়) বাস্তবে তা সামিল নেই অথবা এখনো জিডিপির হিস্যা অনুযায়ী অর্জিতব্য কর অনাহরিত থেকে যাচ্ছে। এ ক্ষেত্রে ৫-৬ শতাংশের একটা ঘাটতি রয়েই যাচ্ছে। উন্নয়ন ও সমৃদ্ধির গুণগত মান নিশ্চিত ব্যতিরেকে উন্নয়ন অর্থবহ হবে না, হয়নি কোথাও। লেখক : জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]