• প্রচ্ছদ » প্রথম পাতা » [১]নাটোরে এবার সাড়ে ৪ লাখ খেজুর গাছ থেকে রস সংগ্রহ করা হচ্ছে [২]৮১ কোটি টাকার গুড় উৎপাদন হবে, বললেন কৃষি কর্মকর্তা [৩]বেশি মুনাফার আশায় কেউ কেউ চিনি মিশিয়ে বাড়াচ্ছে গুড়ের পরিমাণ


[১]নাটোরে এবার সাড়ে ৪ লাখ খেজুর গাছ থেকে রস সংগ্রহ করা হচ্ছে [২]৮১ কোটি টাকার গুড় উৎপাদন হবে, বললেন কৃষি কর্মকর্তা [৩]বেশি মুনাফার আশায় কেউ কেউ চিনি মিশিয়ে বাড়াচ্ছে গুড়ের পরিমাণ

আমাদের নতুন সময় : 23/01/2021

মোস্তাফিজুর রহমান: [৪] নাটোরের সব উপজেলাতেই খেজুর গাছ থাকলেও লালপুর, বাগাতিপাড়া ও গুরুদাসপুরে জ্বালানির সহজলভ্যতায় খেজুর গুড়ের উৎপাদন হয় বেশি।
[৫] নাটোরের বাগাতিপাড়া উপজেলার চন্দ্রখৈর এলাকার গাছি সাইদুল ইসলাম জানান, আমি দীর্ঘ বিশ বছর থেকে খেজুর গাছ লাগাই। এখনকার খেজুরের রস খুব সুমিষ্টি, তাই গুড়ও হয় খুব সুস্বাদু ও সুগন্ধময়। আমাদের তৈরি খেজুর গুড় বেশ উন্নতমানের তাই মানভেদে প্রতিকেজি গুড় বিক্রি হয় ৮৫ থেকে ১০০টাকায়। স্থানীয় চাহিদা মিটিয়ে গুড় চলে যায় রাজশাহী, ঢাকা, চট্টগ্রাম, নোয়াখালি, কুমিল্লাসহ দেশের বিভিন্ন প্রান্তে।
[৬] আতাউর রহমান জানান, বাজারে অনেক অসাধু গাছিরা খেজুর গুড়ে চিনি মিশিয়ে বাজারে বিক্রি করে অনেক মুনাফার জন্য। বাজারে খেজুর গুড়ের চেয়ে চিনির দাম কম। বেশি মুনাফার জন্য অনেকেই মানুষকে প্রতারিত করে। [৭] নাটোরের কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর উপ-পরিচালক সুব্রত কুমার জানান, জেলার প্রায় সাড়ে চার লাখ খেজুর গাছ থেকে রস সংগ্রহ করা হয়। শীতের শুরুতে এই খেজুর গুড়ের বাজার মূল্য কিছুটা কম হলেও শীত বাড়ার সাথে সাথে বাজার মূল্য বেড়ে যায়। সম্পাদনা: শাহানুজ্জামান টিটু

 




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]