• প্রচ্ছদ » শেষ পাতা » [১] বিশ্বে অনেক দেশের তুলনায় ভ্যাকসিনেশনে বাংলাদেশ এগিয়ে [২] গতি বাড়াতে সেচ্ছাসেবী ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের এগিয়ে আসতে হবে বললেন বিশেষজ্ঞরা


[১] বিশ্বে অনেক দেশের তুলনায় ভ্যাকসিনেশনে বাংলাদেশ এগিয়ে [২] গতি বাড়াতে সেচ্ছাসেবী ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের এগিয়ে আসতে হবে বললেন বিশেষজ্ঞরা

আমাদের নতুন সময় : 22/02/2021

আব্দুল্লাহ মামুন : [৩] বিএসএমএমইউ সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক কামরুল হাসান খান বলেন, ভ্যাকসিনেশনে সরকার অগ্রণী ভূমিকা পালন করছে। ভ্যাকসিন গ্রহণে প্রধান কাজটি হলো নিবন্ধন। তবে নানা জটিলতায় জনগণ এ বিষয়ে বিভ্রান্ত হচ্ছে। জায়গাটি আরো পরিষ্কার করতে হবে। [৪] টিকা দান কর্মসূচিতে নিবন্ধণের মূল উদ্দেশ্য ভ্যাকসিনেশনে জনগণের তথ্য বা হিসাব সংরক্ষণ করা। ভ্যাকসিন গ্রহণের পর প্রয়োজনীয় পরামর্শ জানাতেও নিবন্ধণ জরুরি। [৫] সর্বস্তরে মানুষ কর্মব্যস্তার মধ্যে জীবন-যাপন করে তাদের উদ্ভুদ্ধ করে ভ্যাকসিনে আওতায় আনতে হবে। ভ্যাকসিনেশনের মূল উদ্দেশ্য হার্ড হিউমিনিটি। সকলের দায়িত্ব সমন্বিত ভাবে করোনা প্রতিরোধে করা এবং এর অন্যতম মাধ্যম ভ্যাকসিনেশন। পাশাপাশি যতোদিন না করোনা নির্মূল হবে ততোদিন কঠোর ভাবে স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে। [৬] আইইডিসিআরের প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. এএসএম আলমগীর বলেন, সারা পৃথিবীতে যদি ৭০-৮০ শতাংশ মানুষ ভ্যাকসিনের আওতায় না আসে বা পৃথিবীতে একটি দেশও করোনা সংক্রমক থাকা মানে পৃথিবী অনিরাপদ। পৃথিবীর সকল জায়গা নিরাপদ না থাকলে আমরাও স্বস্তিতে থাকতে পারবো না। [৭] রাজধানীর বড় বড় সেন্টার গুলোতে মানুষ ভিড় করে কিন্তু ছোট আকারে যেসব বুথ আছে সেখানে সক্ষমতা বেশি থাকলেও ৫০-৬০ জনের বেশি মানুষ আসে না। বড় বড় হাসপাতালে ভিড় না করে, যাদের বাসার কাছে ছোট ছোট বুথগুলো আছে সেখানেই টিকা গ্রহণের আহ্বান জানান তারা। সম্পাদনা: আসিফুজ্জামান পৃথিল




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]