• প্রচ্ছদ » প্রথম পাতা » [১]ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আসন্ন সফরে এলডিসি-পরবর্তী শুল্কমুক্ত সুবিধা অব্যাহত রাখার বিষয় তুলে ধরতে পারে বাংলাদেশ, বললেন ড. দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য [২] আদায় করা জটিল হবে না বলেও মনে করেন তিনি


[১]ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আসন্ন সফরে এলডিসি-পরবর্তী শুল্কমুক্ত সুবিধা অব্যাহত রাখার বিষয় তুলে ধরতে পারে বাংলাদেশ, বললেন ড. দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য [২] আদায় করা জটিল হবে না বলেও মনে করেন তিনি

আমাদের নতুন সময় : 01/03/2021

বিশ^জিৎ দত্ত: [৩] ২০২৬ সালে বাংলাদেশ স্বল্পমেয়াদী দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে চলে যাবে। এই ট্রানজিশনাল সময়ে বাংলাদেশের সামনে কি চ্যালেঞ্জ রয়েছে ও তার সমাধান সম্পর্কে রোববার সাংবাদিকদের সঙ্গে মত বিনিময় করেন ড. দেবপ্রিয় ভট্টচার্য।
[৪] তিনি বলেন, বাংলাদেশ দ্বিতীয় দফায় এলডিসি থেকে বের হওয়ার যোগ্যতা অর্জন করেছে। এখন চ্যালেঞ্জগুলো হলো, দেশের ভেতরের অর্থনৈতিক কাঠামোর পরিবর্তন। উন্নয়নের গুণমানের দিকে নজর। বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের মধ্যে সমন্বয়মূলক সিদ্ধান্ত। অভ্যন্তরীণ কর আহরণ বৃদ্ধি, কর্মসংস্থান বৃদ্ধি, স্বাস্থ্য খাতের উন্নয়ণ, অর্থনৈতিক বহুধাকরণ ও কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ উৎপাদন থেকে সরে আসা।
[৫] ড. দেবপ্রিয় বলেন, এলডিসিত্তোর আলোচনা যেনও শুধু গার্মেন্টেই সীমাবদ্ধ না থকে। এটি হলে হবে একটি গুরুতর অবহেলা। কারণ কৃষি, ফার্মাসিউটিক্যাল, বৈদেশিক ঋণ, পেটেন্ট আইন, মেধাস্বত্ব, বিভিন্ন দেশের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক চুক্তি বৃদ্ধি বিষয়েও সমান গুরুত্ব দিতে হবে।
[৬] তিনি বলেন, দেশে যদি সুশাসন, নাগরিক অধিকার এসব না থাকে তাহলে এলডিসিত্তোরণে কোনও সমস্যা হবে না। কিন্তু যারা আমাদের সাহায্য করেন সেইসব দেশ আমাদের শাস্তিমূলক ব্যবস্থার চিন্তা করতে পারে। বিশেষ করে নতুন মার্কিন সরকার আসার পর বিষয়টি নতুন মাত্রা পেয়েছে। তিনি মায়ানমারের উদাহরণ দিয়ে বলেন, সেখানে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় শাস্তিমূলক ব্যবস্থার দিকে গিয়েছে। সম্পাদনা: রায়হান রাজীব




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]