• প্রচ্ছদ » » শুধু কি বেতন কমই শিক্ষকদের মান কমের জন্য দায়ী?


শুধু কি বেতন কমই শিক্ষকদের মান কমের জন্য দায়ী?

আমাদের নতুন সময় : 03/03/2021

অধ্যাপক কামরুল হাসান মামুন : আজ থেকে ১০২ বছর আগে অর্থাৎ ১৯১৯ সালে বাংলাদেশের শিক্ষার ভার প্রথমবারের মতো ন্যস্ত হয় একজন এ দেশীয় মন্ত্রীর ওপর। প্রথম মন্ত্রী হলেন প্রভাষচন্দ্র মিত্র। তিনি প্রথম মন্ত্রী হয়েই প্রথম যেই কাজটি করলেন সেটি হলো ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের যে বেতনে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে তা সরকার বহন করতে পারবে না বলে ঘোষণা দিলেন। ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ের প্রথম ভাইস চ্যান্সেলর একটি বড় কাজ করেছিলেন সেটি হলো ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের বেতন তৎকালীন কলকাতা বিশ^বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের চেয়ে বেশি নির্ধারণ করেন। অধ্যাপকদের বেতন নির্ধারণ করা হলো ১০০০-১৮০০ এবং রিডারদের বেতন ৬০০-১২০০। উভয় স্কেলের বেতনই কলকাতা বিশ^বিদ্যালয়ের চাইতে বেশ বেশি ছিলো। এতে কী হলো কলকাতা বিশ^বিদ্যালয় থেকেও অনেক শিক্ষক ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ে যোগ দেওয়ার জন্য আবেদন করেন। অর্থাৎ ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ে ভালো শিক্ষক পাওয়ার সম্ভবনা বেড়ে যায় এবং এর ফলেই সত্যেন বোস, কৃষ্ণাণ, আর সি মজুমদার প্রমুখদের মতো শিক্ষক আমরা পাই। কিন্তু বাংলার মন্ত্রী প্রভাষচন্দ্র মিত্রের ঘোষণার ফলে শিক্ষকদের বেতন অনেক কমে গেলো। এর ফলে তখন ইতিহাস বিভাগসহ কয়কেটি বিভাগে বিদেশি শিক্ষক যোগ দেওয়ার কথা থাকলেও তারা আর যোগ দেননি।
আসলে সব সময় বাঙালিদের ক্ষতি বাঙালিরাই বেশি করেছে এবং এ কথা এখনো সত্যি। বর্তমানে বাংলাদেশের পাবলিক বিশ^বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের বেতন কলকাতা বিশ^বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের বেতনের চেয়ে অর্ধেকেরও কম। স্বাভাবিকভাবে শিক্ষকদের মানও অর্ধেকের চেয়েও বেশি খারাপ বই ভালো না। অথচ সেখানে জীবনযাত্রার খরচ ঢাকা থেকে অনেক কম। শুধুই কি বেতন কমই শিক্ষকদের মান কমের জয় দায়ী? না। এর জন্য দায়ী শিক্ষক নিয়োগ এবং প্রমোশন নীতিমালা এবং শিক্ষক রাজনীতি। শুরুর দিকে কেমন মানের ভিসি হতেন দেখুন পি যে হার্টগ, আর সি মজুমদার প্রমুখদের মতো স্কলার। কলকাতা বিশ^বিদ্যালয়ে তখন ভিসি ছিলেন স্যার আশুতোষ মুখোপাধ্যায়। তিনি কেমন জাদরেল ভিসি ছিলেন সেতো নিশ্চই সবাই জানেন। তিনি কোনো আমলাতন্ত্র মানতেন না। যা ভালো বুঝতেন সেটাই করতেন। আর তিনি যা করতেন সেটাই আইন। এরকম স্বৈরাচারী হওয়া সত্তে¡ও ভালো কাজ করতে পেরেছেন। কারণ তিনি জ্ঞানী, আলোকিত এবং ভালো মানুষ ছিলেন। বিশ^বিদ্যালয় ভালো চালানোর জন্য এরকম নেতা দরকার। অন্তত গত তিন থেকে চারটি ভিন্ন ভিন্ন সরকারের আমলে কাদের ভিসি নিয়োগ দিয়েছে একটু বিশ্লেষণ করলেই স্পষ্ট হয়ে যাবে আমাদের কোনো সরকারই বিশ^বিদ্যালয় তথা দেশের মঙ্গল চায়ননি, এখনো চান না। চাননি বা চায়নি বলেই বেছে বেছে অযোগ্যদের নিয়োগ দেয়। যার ফলাফল মানের ধস। এটিকে রোধ করার ক্ষমতা বর্তমান যে মানের ভিসি ও শিক্ষক নিয়োগ হয় তা দিয়ে সম্ভব না। বেতন ম্যাটার্স। আজকের লেখাটির তথ্যসূত্র: রমেশচন্দ্র মজুমদারের ‘জীবনের স্মৃতিদীপে’ থেকে নেওয়া। বইটি পাঠিয়েছে চধহশধল চঁৎহবহফঁ। তাকে অনেক ধন্যবাদ। লেখক : শিক্ষক, পদার্থবিজ্ঞান, বিভাগ, ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]