যুদ্ধে হেরে সরকার পতনের দাবিতে উত্তাল আর্মেনিয়া

আমাদের নতুন সময় : 06/03/2021

আব্দুল্লাহ যুবায়ের: ২৫ ফেব্রæয়ারি আর্মেনিয়ার প্রধানমন্ত্রী নিকোল পাশনিয়ানের পদত্যাগ দাবিতে রাজপথে নেমে আসে সাধারণ জনগণ। ¯েøাগান দিতে থাকে, নিকোল তুমি সরে যাও। নিকোল তুমি বিশ্বাস ঘাতক। বিক্ষোভকারীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে নিক্ষেপ করে গরম ডিম। বন্ধ করে দেয় ইয়েরেভেনের সড়ক যোগাযোগ। একইদিনে আর্মি জেনারেল স্টাফের প্রধান জেনারেল অনিক গাসপারান নিকোলকে পদচ্যুত করার প্রস্তাবও দেন। তবে দুদিন পর, প্রেসিডেন্ট আর্মান সার্কিশান তার প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেন। সার্কিশান বলেন, সেনাবাহিনীর উচিৎ নয় রাজনীতিতে জড়ানো। তাদের কাজ হলো সরকারকে সহযোগিতা করা। যার যতটুকু দায়িত্ব তার ততটুকুতে সীমাবদ্ধ থাকা উচিৎ। আন্দোলনকারীরা সার্কিশানের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন, তিনি দেশের এ সংকটময় পরিস্থিতিতে যা করলেন, তা দেশের জন্য মঙ্গলজনক নয়। তিনি দেশকে অনিশ্চিত পরিস্থিতির দিকে ঠেলে দিয়েছেন। ১ মার্চ আন্দোলনকারীরা ফের বিক্ষোভ করে। কয়েকটি সরকারি ভবন ঘেরাও করে রাখে তারা। তাদের দাবি একটাই, ব্যর্থ সরকার প্রধানকে তারা মেনে নিতে পারছে না। ২০২০ সালের অক্টোবর মাসে নাগার্নো কারাবাখে নিজেদের নিয়ন্ত্রণ রক্ষার জন্য যুদ্ধে জড়িয়ে পড়ে আজারবাইজান ও আর্মেনিয়া। এ যুদ্ধে প্রাণ হারায় দু’দেশের হাজারো সামরিক ও বেসামরিক মানুষ। ৬ সপ্তাহ পর, রাশিয়ার হস্তক্ষেপে বন্ধ হয় এ যুদ্ধ। অনুষ্ঠিত হয় শান্তিচুক্তি। শান্তিচুক্তির পর এক ভাষণে নিকোল পাশনিয়ান বলেন, আজারবাইজানের সঙ্গে এ চুক্তি আমার ও আমার দেশের জনগণের জন্য খুব দুঃখজনক। সম্পাদনা: আসিফুজ্জামান পৃথিল




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]