• প্রচ্ছদ » প্রথম পাতা » [১]ধরে নিয়ে যাওয়ার পর কিশোরকে নির্যাতন করা হয়েছিলো, বললেন ভাই আহসান কবীর [২]দশ মাসে ৯ কেজি ওজন কমেছে


[১]ধরে নিয়ে যাওয়ার পর কিশোরকে নির্যাতন করা হয়েছিলো, বললেন ভাই আহসান কবীর [২]দশ মাসে ৯ কেজি ওজন কমেছে

আমাদের নতুন সময় : 06/03/2021

বখাটে কাটিং! | দৈনিক কল্যাণইসমাঈল ইমু: [৩] ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় কারাগারে থাকার সময় তার ডায়াবেটিসের মাত্রাও বেড়েছে কয়েক গুণ। কানে পুঁজ জমে শুনতে সমস্যা হচ্ছে। ঠিকমত হাঁটতে এবং চিন্তা করে কথা বলতেও সমস্যা হচ্ছে।
[৪] কিশোরের ভাই লেখক আহসান কবির বলেন, কিশোর গড়নে হালকা-পাতলা ছিলো, এখন ওজন আরও কমেছে। যখন বাসা থেকে ধরে নিয়ে যাওয়া হয়, তখন বøাড সুগার ১০ এর মত থাকতো। এখন তা ১৭ থেকে ২৫ এর মধ্যে পাওয়া যাচ্ছে। চিকিৎসকরা কিশোরের কান ও চোখের পরীক্ষা দিয়েছেন। বাঁ পায়ের এক্সরেও করতে বলেছেন। ওই পায়ে ব্যথার কারণে কিশোরের হাঁটতে কষ্ট হয়। আপাতত কিশোরের কাছ থেকে মোবাইল দূরে রাখা হয়েছে। যেসব পরীক্ষা করা হচ্ছে, শনি বা রোববার তার প্রতিবেদন পাওয়া যাবে বলে জানান তিনি।
[৫] গত বছর ৫ মে কার্টুনিস্ট কিশোর এবং অনলাইনে লেখালেখিতে সক্রিয় ব্যবসায়ী মুশতাক আহমেদকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। পরদিন ‘সরকারবিরোধী প্রচার ও গুজব ছড়ানোর’ অভিযোগে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে তাদের বিরুদ্ধে রমনা থানায় মামলা করা হয়। একই মামলায় গ্রেপ্তার আরও দুজনের জামিন হলেও কিশোর ও মুশতাকের জামিন হয়নি।
[৬] এর মধ্যে মুশতাক গত ২৫ ফেব্রæয়ারি কাশিমপুর হাই সিকিউরিটি কারাগারে মারা যান। গত বৃহস্পতিবার জামিনে মুক্তি পাওয়ার পরপরই ঢাকার একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি হন কিশোর। সম্পাদনা: সালেহ্ বিপ্লব




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]