• প্রচ্ছদ » » ‘পতনের’ আন্দোলন এবং আইন সংস্কারের দাবি


‘পতনের’ আন্দোলন এবং আইন সংস্কারের দাবি

আমাদের নতুন সময় : 07/03/2021

হাসান শান্তনু : ‘ভয়াবহ সরকারপন্থি’ অনলাইন পোর্টালটার (যাদের নোবেল পুরস্কার কমিটির সঙ্গে কথিত যোগাযোগ আছে!) ‘লেখা’ পড়ে বুদ্ধিজীবী সমাজের ভাবনাচিন্তা আঁচ করতে যাওয়া মারাত্মক নির্বুদ্ধিতা। সত্য হচ্ছে, ‘ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে’ গ্রেপ্তার লেখক মুশতাক আহমেদের কারাগারে মৃত্যুর পর আইনটির সংস্কার বা বাতিলের যে দাবি উঠেছে; এ বিষয়ে প্রগতিশীল, অক্ষরের স্বাধীনতাকামী অনেক বুদ্ধিজীবীর মতামত জানা যাচ্ছে না। তবে তার মৃত্যুর পর বাম প্রগতিশীলদের উদ্যোগ, নেতৃত্বে শুরু হওয়া একধরনের বুদ্ধিবৃত্তিক আন্দোলনে কারও কারও ¯েøাগান আন্দোলনের ভবিষ্যৎকে সন্দিহান করে তুলছে। ঢাকায় তাদের বুদ্ধিবৃত্তিক আন্দোলনের কর্মসূচিতে অংশ নেওয়া একজনের ব্যানারে লেখা- ‘আইয়ুব-এরশাদ গেছে যে পথে, হাসিনা যাবে সে পথে’। এটা রাজনৈতিক দল, সংগঠনের; বা বিএনপি-জামায়াতের ¯েøাগান হতে পারে। সরকারবিরোধি রাজনৈতিক দলগুলো সরকারকে রাখা, কী ফেলে দেয়ার কথা বলবে, এটা তাদের নিজস্ব রাজনীতির বিষয়।
রাজনৈতিক দল যেকোনো সরকারের ‘পতনের’ দাবি সময়, অসময়, দুঃসময়ে জানাতেই পারে। তবে সেটা মতো, ভিন্নমত প্রকাশের স্বাধীনতা চেয়ে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন সংস্কারের দাবিতে দলনিরপেক্ষ সচেতন, বুদ্ধিদীপ্ত নাগরিকদের ¯েøাগান হতে পারে না। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের সংস্কার, বাতিলের দাবিতে বুদ্ধিবৃত্তিক আন্দোলন থেকে ‘সরকার পতনের’ দাবির ভালো কোনো অর্থও নেই। বিএনপি-জামায়াত ক্ষমতায় গেলে এ আইন বাতিল বা বিতর্কিত ধারাগুলো সংস্কার করবে, এমন চিন্তা করা পাগলামি মাত্র। কয়েকটি ধারার বিরুদ্ধে এখন জনমত আরও জোরালো বলেই বিএনপি আইনটির বিষয়ে কথা বলছে। বিএনপি-জামায়াতের আমলে ‘ক্রসফায়ারের’ বিরুদ্ধে প্রবল জনমত সৃষ্টি হলে তখনকার সংসদে বিরোধীদল আওয়ামী লীগও বলেছিলো, সরকার গঠন করতে পারলে ‘ক্রসফায়ার’ বন্ধ করবে, জড়িতদের শাস্তি দেবে। অথচ দলটির সরকার টানা গত একযুগ ধরে ভিন্ন সংস্করণে ‘ক্রসফায়ার’ টিকিয়ে রেখেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এক দশকের উন্নয়নকে বছর দেড়েক আগেই অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ ‘স্বৈরশাসক আইয়ুব, এরশাদের উন্নয়নের সঙ্গে’ তুলনা করেছেন। এ বিষয়ে আনু মুহাম্মদের সঙ্গে প্রাতিষ্ঠানিক আলোচনায় যতোজন আগ্রহী হবেন, বা তিনি সরকারবিরোধীদের যে সমর্থন পাবেন, তাদের পুরো অংশ তো পরের কথা; একটা ক্ষুদ্র অংশও তার পেছনে সরকার ‘পতনের’ কর্মসূচিতে অংশ নেবেন না। সরকার ‘পতনের’ ¯েøাগানের বদলে তাই ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের কর্তৃত্ববাদী ধারাগুলো বাতিলের দাবিই তীব্রতর হোক নাগরিক সমাজ থেকে। ফেসবুক থেকে




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]