• প্রচ্ছদ » » বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ গোটা জাতির সামনে উদ্দীপক ছিলো


বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ গোটা জাতির সামনে উদ্দীপক ছিলো

আমাদের নতুন সময় : 07/03/2021

খালেকুজ্জামান

১৯৪৮ সালের পর ১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলন, ১৯৫৪ সালের যুক্তফ্রন্ট নির্বাচন, ১৯৬২ সালের শিক্ষা আন্দোলন, ১৯৬৬ সালের ৬ দফা, পরবর্তীকালে ১১ দফার আন্দোলন এবং ধাপে ধাপে চ‚ড়ান্ত আন্দোলন স্বাধীনতা যুদ্ধ সংগঠিত হয়। তবে বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ গোটা জাতির সামনে উদ্দীপক ছিলো। এই ভাষণ গোটা জাতির জন্য উদ্দীপনা ছিলো এবং নির্দেশমূলক বক্তব্য ছিলো। মানুষের কাছে ৭ মার্চে ভাষণটি পরিষ্কার ছিলো এবং পৌঁছে গিয়েছিলো যে স্বাধীনতার কোনো বিকল্প নেই এবং আমাদের এই স্বাধীনতার লড়াই লড়তে হবে। পরবর্তী সময়ে সেই পথে দেশ এগিয়েছে। ৭ মার্চ ভাষণের সময় আমরা মাঠেই ছিলাম। এই মাঠে এসে জড়ো হয়েছিলো লাখ লাখ মানুষ। সারাদেশে পরিস্থিতি একই ছিলো, অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতি এবং সেই সময় মানুষ যে আশা-আকাক্সক্ষা নিয়ে জড়ো হয়েছিলো, যে বঙ্গবন্ধু যুদ্ধের ঘোষণা দেবেন এবং তিনি সেটিই ব্যক্ত করেছেন।
পরবর্তীকালে যখন আলোচনা শুরু হলো তখন মানুষ সেখানে একটা অপেক্ষার মধ্যে ছিলো, এখানে কোনো আপোসের দিক যাবে না লড়াইয়ের দিকে যাবে? যখন ১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ রাতে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী হঠাৎ আক্রমণ করে এরপর ২৭ মার্চ একজন সামরিক কর্তা হিসেবে জিয়াউর রহমান স্বাধীনতার ঘোষণাপত্র পাঠ করেনে। তখন এই ঘোষণাও মানুষকে উদ্বুদ্ধ করে কিন্তু জনগণের যে সংগ্রাম ও সংগ্রমী আকাক্সক্ষা এমন জায়গায় ছিলো, যে সেই মুহূর্ত স্বাধীনতার কোনো বিকল্প ছিলো না। ওই মুহূর্তে এমন অবস্থা বিরাজ করছিলো যে কোনো আপোস বা সমঝোতা কোনোভাবেই মানুষ মানতো না। একপর্যায়ে বাঙালিরা একটি সশস্ত্র শক্তির বিরুদ্ধে একত্রিত হলো এবং পুরো জাতি ঐক্যবদ্ধ হয়ে প্রতিরোধ গড়ে তোলে এবং সংগ্রামে মানুষ ঝাপিয়ে পড়ে। পরিচিতি : সাধারণ সম্পাদক, বাসদ। সাক্ষাৎকার নিয়েছেন আব্দুল্লাহ মামুন




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]