• প্রচ্ছদ » » বিশে^র সর্বশ্রেষ্ঠ স্বাধীনতার ভাষণ


বিশে^র সর্বশ্রেষ্ঠ স্বাধীনতার ভাষণ

আমাদের নতুন সময় : 07/03/2021

অধাপক ড. অনুপম সেন : একাত্তর সালের ৭ মার্চ রেসকোর্স ময়দানে ১০ লাখ লোকের সামনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যে ভাষণ দিয়েছিলেন তা বিশে^র মধ্যে স্বাধীনতার শ্রেষ্ঠ ভাষণ। কারণ এই ভাষণের শেষ বাক্যটি ছিলো, ‘এবারের সংগ্রাম আমাদের ম্ুিক্তর সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম।’ এরকমই একটি অসাধারণ বাক্য আমরা বিশ^ ইতিহাসে যে বিভিন্ন মুক্তির ভাষণ শুনি তার মধ্যে নেই। মার্টিন লুথার কিং জুনিয়ার যিনি বø্যাক আমেরিকানদের সিভিলাইজড করার জন্য যুদ্ধ করেছিলেন তিনি বলেছিলেন, ‘আই হেভ এ ড্রিম’Ñ আমার একটি স্বপ্ন আছে। আব্রাহাম লিংকনের ভাষণে বলেছিলেন, গণতন্ত্র হলো ‘জনগণের দ্বারা গঠিত, জনগণের জন্য এবং জনগণের সরকার’। এছাড়াও বিশ্ব ইতিহাসে কতোগুলো অসাধারণ ভাষণ আছে যেমন পেরিক্লিসের ভাষণ। এথেন্স এবং স্পার্টার যুদ্ধের সময় একটি ভাষণ দিয়েছেন। বস্তুনিষ্ঠ ইতিহাসের সবচেয়ে মূল্যবান গ্রন্থটি হচ্ছে পেলোপনিসিয়ান যুদ্ধ নিয়ে। এটি নিয়ে ফুকিডাইস লিখেছেন পেলোপনিসিয়ান ওয়ার। সেখানে একটি বক্তৃতা আছে পেরিক্লিসের। এথেন্সের সৈন্য যারা মারা গিয়েছিলো তাদের স্মরণ করে। সেই বক্তৃতাটিও অসাধারণ, এথেনিয়ান ডেমোক্রেসি নিয়ে। গ্রীসের স্বাধনীতার জন্য বায়রণের যে কবিতা সেগুলোও চমৎকার। কিন্তু এর মধ্যে বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণটি বিশ্বের সর্বশেষ্ঠ স্বাধীনতার ভাষণ। তিনি প্রায় ১৯ মিনিট এই বক্তৃতাটি দিয়েছেন। এটা অত্যন্তু গোছানো বক্তৃতা। এখানে তিনি বাঙালির হাজার বছরের বেদনাকে তুলে ধরেছেন।
বাঙালি তার হাজার বছরের ইতিহাসে কোনোদিন স্বাধীনতা পায়নি। অনেক স্বাধীন রাজ্য ছিলো। পালরা স্বাধীনভাবে ৪০০ বছর রাজত্ব করেছে। সেন রাজত্ব ছিলো প্রায় ১০০ বছর। সুলতানরা রাজত্ব করেছে। মুঘল সুবেদাররা রাজত্ব করেছে। শেষ দিকে মুঘল সুবেদাররা নিজেরাই স্বাধীন হয়ে গিয়েছিলেন। মুর্শিদকুলি খান, শরাফত খান, আলীবর্দী খাঁ, সিরাজউদ্দৌল্লা অনেকটা স্বাধীনভাবে রাজত্ব করেছেন। যদিও তারা ছিলেন মুঘল স¤্রাটের সনদ পাওয়া সুবেদার। কিন্তু এসব সময়ে রাজার স্বাধীন ছিলেন। তাদের সেনাপতিরা স্বাধীন ছিলেন কিন্তু সাধারণ মানুষ স্বাধীন ছিলো না। সাধারণ মানুষরা প্রজা ছিলো। হাজার বছরের ইতিহাসে ১৯৭১ সালেই বাঙালি প্রথম স্বাধীনতা পায় বলে আমি মনে করি। ফরাসি বিপ্লব হয়েছিলো ১৭৮৯ সালের ১৪ জুলাই। ৪ আগস্ট ডিকলারেশন অব দি রাইটস অব ম্যান। ফরানিরা এখনো পর্যন্ত তাদের স্বাধীনতা দিবস উদযাপন করেন ১৪ জুলাই। তার পূর্বে অনেক স্বাধীন রাজ্য ছিলো, অনেক স্বাধীন রাজা ছিলো, সেগুলো তারা স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে উদযাপন করে না। তারা উদযাপন করে ১৪ জুলাই। আমরা উদযাপন করি ২৬ মার্চ। ১৬ ডিসেম্বর বিজয় দিবস। বাঙালি ১৯৭১ সালে প্রকৃত স্বাধীনতা পায় এবং সেই স্বাধীনতা দিবসটি পায় ৭ মার্চের ভাষণে। সেই ভাষণটি আসাধারণ। সেখানে বাঙালির হাজার বছরের যে আকাক্সক্ষা, বাঙালির স্বাধীন হওয়ার যে স্বপ্ন তার সবটাই ৭ মার্চের ভাষণের মধ্যে মূর্ত হয়েছে। পরিচিতি : শিক্ষাবিদ। সাক্ষাৎকারের ভিত্তিতে লেখাটি লিখেছেন আমিরুল ইসলাম




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]