• প্রচ্ছদ » » শিয়াল ও বকের নিমন্ত্রণ : যেমন বঙ্গে তেমন রুশদেশে


শিয়াল ও বকের নিমন্ত্রণ : যেমন বঙ্গে তেমন রুশদেশে

আমাদের নতুন সময় : 07/03/2021

মাসুদ রানা : শিয়াল ও বকের পারস্পরিক নিমন্ত্রণের গল্পটা কি শুধু বাঙালীর? না, শিয়াল ও বকের নিমন্ত্রণ খাওয়া-খাওয়ির গল্পটি রুশদেরও। প্রকৃতপক্ষে গল্পটি আন্তর্জাতিক। এ-গল্পটির ভাস্কৃতি রয়েছে মস্কৌর রেড স্কয়ারের পাশ আলেক্সাÐার গার্ডেনে। আমি আমার ছেলে-মেয়েকে ওটি দেখিয়ে নীচের গল্পটি বলাতে ওরা বেশ আনন্দ পেলো এবং শিশুতোষ গল্পের বিশ্বজনীনতা উপলব্ধি করলো। এক বনে বাস করতো এক শিয়াল এবং বনের ভেতর একটি ঝিলে ছিলো এক বকের বাসা। বক তার স্বভাব মতো শিকার করে খেতো লম্বা ঠোঁট দিয়ে পানিতে থাকা মাছ খপ করে ধরে। আর, শিয়াল খেতো পাশের গ্রামের মুরগী চুরি-টুরি করে। তো, একদিন শিয়াল বককে নিমন্ত্রণ করে তার বাড়ীতে। বক নিমন্ত্রণ খেতে এলে, শিয়াল তাকে একটা চ্যাপ্টা থালায় খেতে দেয় এবং বলে, ‘চলুন দু’জনে মিলে এক পাত্রেই খাই।’ শিয়াল সহজেই তার মুখ-জিভ-দাঁত দিয়ে থালার খাবার খেলো। কিন্তু লম্বা ঠোঁট দিয়ে গেঁথে খাবার খেতে বকের বেশ অসুবিধে হয় বলে সে খেয়ে তৃপ্তি পেলো না। বক শিয়ালের নিমন্ত্রণ খেতে না পেয়ে মনে কষ্ট পেলো এবং ক্ষুব্ধও হলো। আর, শিয়াল বককে ঠকাতে পেরে নিজেকে চালাক মনে করে বেশ তৃপ্তি পেলো, কিন্তু মুখে বললো, ‘বন্ধু আপনাকে আপ্যায়িত করে আমি নিজেকে ধন্য মনে করছি।’ বক বললো, ‘অবশ্যই বন্ধু, সে-কি আর বলতে! দয়া করে আগামী সপ্তাহান্তে আমার বাড়ী আসুন এবং আমাকে আপনার সেবা করতে দিয়ে ধন্য করবেন আশা করি।’ চালাক শিয়াল খুব খুশী হয়ে নিমন্ত্রণ গ্রহণ করলো। নিমন্ত্রণের দিন শিয়াল যথারীতি বকের বাড়ী গেলো। বক শিয়ালকে হাসিমুখে সম্ভাষণ জানিয়ে বসতে দিলো ঝিলের কাছে। গল্প-টল্প সেরে খাবার সময় এলে বক বললো, ‘বন্ধু আপনার মতোই আমি ঠিক করেছি আমরা দু’জনেই একপাত্রে খাবো।’ শিয়াল বললো, ‘নিশ্চয়, নিশ্চয়!’ বক যখন খাবার নিয়ে এলো, শিয়াল দেখলো খাবার পরিবেশন করা হয়েছে একটি সরু গলার বোতলে। বক বললো, ‘চলুন বন্ধু, শুরু করি।’ শিয়াল যদিও খুবই ক্ষুধার্ত ছিলো, কিন্তু সরু গলার বোতলে তার মুখ ঢুকানো সম্ভব হলো না। এদিকে, বক তার সরু ঠোঁট বোতলের ভেতর ঢুকিয়ে খাবার খেতে থাকলো। শিয়ালকে খেতে না দেখে বক জিজ্ঞেস করলো, ‘কী হলো বন্ধু খাচ্ছেন না যে!’ শিয়াল কাষ্ঠহাসি হেসে বললো, ‘আসলে বন্ধু আজ আমার পেট ভালো নেই। তাই খেতে চাচ্ছি না। আপনি খেতে থাকুন, আমি বরং আজ আসি।’ ০৬/০৩/২০২১। লÐন, ইংল্যাÐ।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]