[১]সংক্রমণ নিয়ে শহর ছেড়েছে অনেকে [২] নজরদারির তাগিদ বিশেষজ্ঞদের

আমাদের নতুন সময় : 07/04/2021

শিমুল মাহমুদ: [৩] করোনা চিকিৎসার সঙ্গে সম্পৃক্ত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ^বিদ্যালয়ের চিকিৎসক অধ্যাপক আতিকুর রহমান বলেন, ঢাকাসহ কিছু বিভাগীয় শহরে করোনার নতুন ভাইরাস সীমিত থাকলেও এখন সারাদেশ এর ব্যাপ্তি ছড়িয়ে পরার সম্ভাবনা রয়েছে। কারণ সরকারের নিষেধাজ্ঞা ঘোষণার পরও মানুষজন গ্রামে ফিরে গেছেন। যাদের অনেকে সংক্রমণ সঙ্গে করে নিয়ে গেছেন।
[৪] জনস্বাস্থ্যবিদ বেনজির আহমেদ বলেন, এক জেলা থেকে অন্য জেলায় চলাচল নিয়ন্ত্রণ করা না গেলে সংক্রমণ প্রতিরোধ কোনোভাবেই সম্ভব নয়।
[৫] প্রধানমন্ত্রী ব্যক্তিগত চিকিৎসক অধ্যাপক ডা. এবিএম আব্দুল্লাহ বলেন, গ্রামের অধিকাংশ মানুষ এখনো করোনা থেকে নিজেকে রক্ষা করার জন্য গ্লাভস বা ফেস মাস্ক ব্যবহার করছে না। হাট-বাজারে দোকানে বসে আড্ডা দিচ্ছে। আর শহর থেকে এই মানুষগুলো গ্রামে গিয়ে তার নিজ পরিবার ও আত্মীয়-স্বজনের পাশাপাশি পুরো গ্রামকে হুমকির মুখে ফেলছে।
[৬] সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের (আইইডিসিআর) উপদেষ্টা ও সাবেক প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ডা. মোশতাক হোসেন বলেন, বাংলাদেশে করোনা সংক্রমণের রিপ্রোডাকশন রেট এখন ১.৬ যা ইউরোপ এবং এশিয়ার যে কোন দেশের চেয়ে অনেক বেশি। [৭] তিনি বলেন, ‘করোনা নিয়ন্ত্রণের জন্য তিনভাগে কাজ করতে হবে। এক, যারা সংক্রমিত হয়েছেন তাদের স্বাস্থ্য বিভাগের চিকিৎসা সেবায় আনতে হবে। পাশাপাশি সরকারি আইসোলেশন সেন্টার খুলে সেখানে রাখতে হবে। তাদের নিয়মিত পর্যবেক্ষণ করতে হবে। এছাড়া পরিবারের সদস্যদের জন্য কোয়ারেন্টাইন কেন্দ্র খুলতে হবে। যা কিনা আইসিইউ খরচের চেয়েও অনেক কম। সম্পাদনা : মোহাম্মদ রকিব




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]