প্রকাশিত: Wed, Apr 5, 2023 5:42 PM
আপডেট: Wed, Jul 24, 2024 12:11 PM

মির্জাগঞ্জে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে সূর্যমুখী চাষ

আতিকুল আলম সোহেল : সময়ের পরিবর্তনের সাথে সাথে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে সুর্যমূখীর চাষ। মির্জাগঞ্জ উপজেলায় এবারের মৌসুমে ব্যাপকভাবে চাষ হয়েছে সুর্যমুখীর। মাঠ জুড়ে যেন হাসতে হাসতে লুটোপুটি খাচ্ছে সূর্যমুখী। উপজেলার ৬  ইউনিয়নে বিভিন্ন এলাকায় এমনই মনোমুগ্ধ কর দৃশ্য চোখে পড়ে। এবারের সূর্যমুখীর ফলন নিয়েও আশাবাদী চাষিরা।

জানা গেছে, এ বছর উপজেলায় ৩৮ হেক্টর  জমিতে সূর্যমুখী চাষ করা হয়েছে। সরকারি প্রণোদনা দিয়ে ৫০ কৃষককে সূর্যমুখী মির্জাগঞ্জ উপজেলার উত্তর রানীপুর গ্রামের তেলজাত শস্য সূর্যমুখী চাষী মো. আঃ রাজ্জাক  জানান, উপজেলা কৃষি বিভাগের সহযোগিতা ও পরামর্শে তার ৫০ শতাংশ অনাবাদি জমিতে সূর্যমুখীর চাষ করেছেন।যদি সূর্যমুখীর চাষ লাভজনক হয় তাহলে আগামীতে যত্ন নিয়ে ব্যাপকভাবে চাষ করবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

রানীপুর গ্রামের কৃষক আবদুস সালাম বলেন, উপজেলা কৃষি বিভাগের সহয়তা ১ একর জমতি সূর্যমুখীর চাষ করেছি। কৃষি অফিস থেকে বিনামূল্যে সার ও বীজ দেওয়া হয়েছে। ফলন খুবই ভালো। মনে হয় সূর্যমুখী ভাঙ্গিয়ে যে তৈল পাওয়া যাবে তাতে এবছর চলে যাবে।মির্জাগঞ্জ উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ আরাফাত হোসেন  বলেন, তিনি সূর্যমুখী চাষ বিষয়ে কৃষকদের সার্বক্ষণিক পরামর্শ দেন।সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী তেলজাত শস্য উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষে এ বছর উপজেলার ৫০ জন কৃষকে সূর্যমুখী চাষে প্রণোদনা দেওয়া হয়েছে। ফলনও আশানুরূপ। এভাবে উপজেলার কৃষকরা যদি সূর্যমূখী চাষে আগ্রী হয় তাহলে ভোজ্য তেলের অনেকটা পুরণ হবে।তাছাড়া সূর্যমুখী তৈল স্বাস্থ্যসম্মত, দেহের জন্য খুবই উপকারী।