প্রকাশিত: Thu, Jan 25, 2024 10:45 PM
আপডেট: Thu, Feb 22, 2024 6:16 PM

[১] উত্তরাঞ্চলে হাঁড়কাপানো শীত কমছে না [২] আগুন পোহাতে গিয়ে দগ্ধ নারীর মৃত্যু

মুরাদ হাসান: [৩] প্রায় এক মাস ধরে তীব্র শীত বিরাজ করছে উত্তরের জনপদে। সঙ্গে শৈত্যপ্রবাহের হিমেল বাতাস।  কনকনে ঠান্ডায় ঘর থেকে বের হওয়াই দায়। এ পরিস্থিতিতে  জীবিকা নিয়ে দুর্ভোগে রয়েছেন শ্রমজীবীরা।    জীবনযাত্রায় নেমে এসেছে স্থবিরতা। দুদিনে ধরে তাপমাত্রা একটু বাড়লে পরিস্থিতির উন্নতি হয়নি।

[৪] প্রতিনিধি সোহাগ গাজী জানান-  আবারো দেশের সরবনিম্ন তাপমাত্রায়  কাঁপছে দিনাজপুরের মানুষ। কন কনে ঠান্ডা উত্তর দিক থেকে বয়ে আসা হিমেল বাতাসে কাবু এঞ্চলের মানুষ। আবহওয়া অফিসের তথ্যমতে বৃহস্পতিবার দিনাজপুরে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৮ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস। 

[৫] শীতে কাবু হয়ে পড়েছে জনজীবন। কুয়াশার কারণে অনেক বেলা পর্যন্ত হেডলাইট জ্বালিয়ে চলছে দূরপাল্লার যানবাহন। সন্ধ্যার পরে জরুরি প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে বের হচ্ছেন না সাধারণ মানুষ।

[৬] সকালে ছিন্নমূল আর গ্রামীণ মানুষ খড়কুটো জ্বালিয়ে শীত নিবারণের চেষ্টা করছেন। সবচেয়ে বেশি দুর্ভোগে পড়েছেন নিম্ন আয়ের খেটে খাওয়া শ্রমজীবী মানুষ।

[৭] প্রতিনিধি মাহামুদুল হাসান জানান- তীব্র শীত আর উত্তর-পশ্চিম দিক থেকে বয়ে আসা হিমশীতল বাতাসে চরম বিপাকে পড়েছে পঞ্চগড়ের মানুষ।

[৮] বৃহস্পতিবার তাপমাত্রা ৮ দশমিক ৬ ডিগ্রি রেকর্ড করা হয়েছে। বুধবার দেশের সর্বনিম্ন ৮ দশমিক ৪ ডিগ্রি তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়। মেঘলা আকাশ ও উত্তর-পশ্চিম দিক থেকে বয়ে আসা হিমশীতল বাতাসে জনজীবন বিপর্যস্ত পড়ে পড়েছে।

[৯] শীত নিবারণ করতে আগুন পোহানোর ঘটনায় একমাসে ২৯ জন দগ্ধ হয়ে পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। এদের মধ্যে   ফেলাই বেওয়া নামে এক বৃদ্ধা  বৃহস্পতিবার মারা গেছেন।