প্রকাশিত: Wed, Aug 16, 2023 10:48 PM
আপডেট: Thu, Jul 25, 2024 6:15 AM

[১]বাংলাদেশ ব্যাংকের ডাটাবেজ হাতিয়ে নেওয়ার দাবি [২]ভারতীয় হ্যাকারদের সাইবার হামলা ঠেকাতে পারলো না বাংলাদেশ

মাজহারুল মিচেল: [৩] বাংলাদেশ অবশেষে ঠেকাতে পারলো না সেই ভারতীয় হ্যাকার গ্রুপ ‘ইন্ডিয়ান সাইবার ফোর্স’ এর সাইবার হামলা। বুধবার সরকারি ও বেসরকারি প্রায় ২৫ টি গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইট ডিডসের (ডিস্ট্রিবিউটেড ডিনায়েল অব সার্ভিস) মাধ্যমে সার্ভার ডাউন করা হয়।

[৪] হ্যাকাররা এ হামলার দায় স্বীকার করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টেলিগ্রাম ও ফেইসবুকে প্রতিষ্ঠানের নাম উল্লেখ করে একটি পোস্ট দেয়।

[৫] আর্থিক খাতে কোনো দুর্ঘটনার খবর না এলেও বাংলাদেশ ব্যাংক ও চট্টগ্রাম কাস্টমস হাউজের ওয়েব সাইট সাইবার হামলার শিকার হয়। বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে ৪০ হাজার ডাটাবেজ হাতিয়ে নেওয়ার দাবিও করেছে তারা। 

[৬] মঙ্গলবার (১৫ আগস্ট) গভীর রাত থেকে হ্যাকাররা হামালার চেষ্টা চালায়। সাইবার হামলার পর এক ঘন্টা ডাউন রাখার দাবি করে এমনই বার্তা দিয়েছে হ্যাকার গ্রুপ।

[৭] এছাড়াও বাংলাদেশ রেলওয়ের ই-টিকেটিং সাইট সহজ ডট কমে হামলা চালায়। এই সংক্রান্ত একটি পোস্ট দিয়ে তারা লিখেছে, “ঘড় নঁংবং, ঘড় ঃৎধরহং, ঃড়ফধু ভড়ৎ ইধহমষধফবংয”। ভষুঃরপশবঃ.পড়স.নফ ওয়েবসাইটও ডাউনের দাবি করেছে হ্যাকাররা। এ সংক্রান্ত পোস্টে তারা লিখেছে, “ ঘড় ভষরমযঃং ঃড়ফধু ংড়ৎৎু”.

[৮] হামলার তালিকায় আরও রয়েছে বিডি ই-সেবা ডটকম, মাইগভ বিডি, বিডি স্কিল গভ বিডি, আইডি টেক্সট গভ বিডি, ই-টিকেট রেলওয়ে গভ বিডি, সাইনঅভপ ডট লাইভ ডটকম। সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইটের আইডি পাসওয়ার্ডও তারা গ্রুপে শেয়ার করেছেন।

[৯] বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক (আইসিটিডি) দেবদুলাল রায় বলেন, বাংলাদেশ ব্যাংকে কোনো গ্রাহকের অ্যাকাউন্ট নেই। শুধু সরকারের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের মোট ৬৩টি অ্যাকাউন্ট আছে বর্তমানে। আমার নিজেরও অ্যাকাউন্ট নেই। কোনো অ্যাকাউন্ট যদি থেকে থাকে তা হলে সেটি অন্য ব্যাংকের। 

[১০] তিনি বলেন, বিষয়টি সকালে আমি দেখেছি। তারা বাংলাদেশের একটি ব্যাংক লিখতে গিয়ে ভুলে হয়তো বাংলাদেশ ব্যাংক লিখেছে। বাংলাদেশ ব্যাংক না। যে ডেটা তারা দিয়েছে দেখে মনে হচ্ছে এটি অনেক পুরোনো যা বিশ্বাসযোগ্য না। ডাটাগুলো বুয়েটের পেছনে অথবা চকবাজারের আশপাশের কোনো ব্রাঞ্চের ডাটা। মনে হচ্ছে এটা ভুল ডাটা। এই ডাটার কোনো ভ্যালিডিটি আছে বলে মনে হয় না। আমাদের এখনও কোনো সমস্যা হয়নি।

[১১] শুধু নিজেদের পাবলিসিটির ও নিজেদের ক্ষমতা দেখানোর জন্য এ হ্যাকররা বলছে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

[১২] এদিকে, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) বিভাগের বিজিডি ই-গভ সার্ট  একে হামলা বললেও হ্যাকড হয়েছে বলে স্বীকার করেননি।

[১৩] এ সংস্থার মুখপাত্র সুকান্ত চক্রবর্তী জানান, তারা এ ব্যাপারে যথেষ্ট পরিমান সচেতন। সকাল থেকেই তারা নানাভাবে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে যাচ্ছেন। তবে তারা এখন পর্যন্ত তেমন কোন ক্ষতিকর জিনিস পাননি বলে জানিয়েছেন।

[১৪] তিনি আরও বলেন, ১৫ আগষ্টের আগেই নির্বাচন কমিশন, রাষ্ট্রপতির কার্যালয় ও তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি নিজস্ব কম্পিউটার ইমার্জেন্সি রেসপন্স টিম (সার্ট) গঠন করেছে। ডিডস হামলার মাধ্যমে ওয়েবসাইটটিকে ব্যস্ত রাখা হয়, যাতে সেটিতে কেউ ঢুকতে না পারে।

[১৫] তথ্য ও যোগাযোগ বিভাগের (আইসিটি) সচিব মো. সামসুল আরেফিন বলেন, আমি কম্পিউটার ইনসিডেন্ট রেসপন্স টিমের (সার্ট) সঙ্গে কথা বলেছি, তারা (সার্ট) বলেছে, বড় ধরনের কিছু হয়নি ছোটখাটো কিছু আছে। তারা যে দাবি করছে সেগুলো ওরকম কিছু না। অনেক সময় ভুয়া দাবিও করা হয়ে থাকে। সার্ট এটি যাছাই করছে। সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলোর সঙ্গে কথা বলে ভেরিফাই করলে আর ক্লিয়ার হওয়া যাবে। বাংলাদেশ ব্যাংক ভেরিফাই করে দেখতে পারে।

[১৬] এর আগে ১১ আগস্ট রাত ২টা ২৭ মিনিটে হুমকি দিয়ে আর একটি পোস্টে তারা লিখেছে-শুভেচ্ছা, বাংলাদেশ সরকার, আপনি আমাদের সাইবার অপরাধী হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন। আপনি কি কখনো এই অপারেশনের পেছনের যুক্তিকে পুরোপুরি বোঝার চেষ্টা করেছেন? প্রকৃত কারণ হলো সম্প্রতি সাইবার আক্রমণের যে ঘটনা ঘটেছে, আমাদের সোজাসাপ্টা কথা হলো আমরা কেবল ভারতীয় সাইবার যোদ্ধা, অপরাধী নই। সম্পাদনা: শামসুল হক বসুনিয়া