প্রকাশিত: Fri, Aug 25, 2023 11:33 PM
আপডেট: Thu, Jul 25, 2024 5:50 AM

[১]রোহিঙ্গা ও মিয়ানমারের সব মানুষের ন্যায়বিচার চায় যুক্তরাষ্ট্র: অ্যান্থনি ব্লিঙ্কেন

সালেহ্ বিপ্লব: [২] মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি জে. ব্লিঙ্কেন বলেছেন, মিয়ানমারের সব মানুষের জন্য ন্যায়বিচার ও জবাবদিহি নিশ্চিত করতে যুক্তরাষ্ট্র প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। ২৫ আগস্ট রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে গণহত্যার ৬ বছর পূর্তি উপলক্ষে এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্র মিয়ানমারের জনগণের গণতান্ত্রিক, অন্তর্ভুক্তিমূলক ও শান্তিপূর্ণ ভবিষ্যতের আকাক্সক্ষার সঙ্গে সংহতি প্রকাশ অব্যাহত রাখবে। যুক্তরাষ্ট্র ভুক্তভোগী ও বেঁচে যাওয়াদের পাশে রয়েছে। সূত্র: ইউএনবি

[৩] তিনি বলেন, প্রায় ১০ লাখ রোহিঙ্গা শরণার্থীকে আশ্রয় দেওয়ার জন্য আমরা বাংলাদেশ সরকার ও জনগণের প্রতি গভীরভাবে কৃতজ্ঞ। পাশাপাশি এই অঞ্চলের অন্যান্য দেশও রোহিঙ্গা শরণার্থীদের আশ্রয় দিচ্ছে।

[৪] তিনি জানান, যুক্তরাষ্ট্র ২০১৭ সাল থেকে মিয়ানমার, বাংলাদেশ ও এই অঞ্চলের অন্যত্র সংকটে ক্ষতিগ্রস্তদের সহায়তার জন্য ২ দশমিক ১ বিলিয়ন ডলারেরও বেশি সহায়তা প্রদান করেছে। এটিই সহিংসতায় যাদের জীবন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তাদের জীবন রক্ষাকারী মানবিক সহায়তার শীর্ষস্থানীয় একক বৃহত্তম সহায়তা। মিয়ানমার জুড়ে সহিংসতা বৃদ্ধি পাওয়ায় ভয়াবহ মানবিক পরিস্থিতি আরও খারাপ হয়েছে, বিশেষ করে রোহিঙ্গাসহ জাতিগত ও ধর্মীয় সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের সদস্যদের জন্য।

[৫] মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের তথ্য, মিয়ানমারে ২০১৭ সালের ডিসেম্বর থেকে চলমান সহিংসতার জন্য সবচেয়ে বেশি দায়ী ব্যক্তি ও সত্ত্বার ওপর নিষেধাজ্ঞা ও ভিসা বিধিনিষেধ আরোপ করেছে যুক্তরাষ্ট্র। সম্পাদনা: তারিক আল বান্না