• প্রচ্ছদ » » সাহিত্য একটা কমপ্লিট ডিসিপ্লিন, বারুদের ফুলকি জাতীয় কোনো ব্যাপার নয়


সাহিত্য একটা কমপ্লিট ডিসিপ্লিন, বারুদের ফুলকি জাতীয় কোনো ব্যাপার নয়

আমাদের নতুন সময় : 17/04/2021

শোয়েব সর্বনাম : বইয়ের বাজারটা ২০০৭ সালের পর থেকে বেশ আনপ্রেডিক্টেবল হয়ে উঠছে। বইয়ের বাজারে হুট করে একটা পরিবর্তন দেখা যায়, যখন বøগাররা বাজারে আসেন। সেই বছর সমুদ্র কাশেম, আকাশ আইয়ূব, শূন্য বিছানা ইত্যাদি নামধারি বøগাররা বই প্রকাশ করা মাত্র হাজার কপি বিক্রি হয়ে গেলো। মেলার বেস্টসেলার বইগুলা লেখা হইতে থাকলো বøগারদের কিবোর্ডে। ২০১৩ সালে এসে সেই বাজারে ধস নামে এবং তাদের পাঠকরাই তাদের নামগুলোও এখন আর ঠিকঠাক মনে করতে পারেন না। এরপরে নতুন বাজার তৈরি হয় ফেসবুক সেলিব্রেটিদের, সেই বাজার এখনো আছে। তবে তাদের বাজারও খুব বেশিদিন থাকবে এমন সম্ভাবনা নেই। অলরেডি ধস নামতে ধরছে, গত কয়েক বইমেলার এক বেস্টসেলার ফেসবুক সেলিব্রেটির বই এইবছর হাজার কপি ছেপে আমার এক প্রকাশক বন্ধু অলরেডি কপাল চাপড়াইতেছেন। আগে বইমেলাগুলাতে সাহিত্যের বইগুলার বাইরে খুব বিক্রি হইতো রান্নার বই, ডেল কার্নেগির সফল হওয়ার সূত্র, কম্পিউটারের হাতেখড়ি ইত্যাদি। সেই বইগুলার বাজার পরবর্তিতে দখল করছে বøগ আর ফেসবুক করা লোকেরা। এই বাজারটা এইভাবেই শাফল করতে করতে থাকবে কোনো সন্দেহ নেই। আমাদের সময় ইংরেজি শিক্ষার সবচেয়ে ভালো বই ছিল এফএম মেথড। লেখক ছিলেন ফিরোজ মুকুল নামের একজন শিক্ষক। কথিত আছে, সেই বই পড়েই খালেদা জিয়া ইংরেজি শিখে বিদেশিদের লগে আলাপ করতেন। সেই সময়ে দেশের বাইরে সকল রাষ্ট্রীয় ট্যুরে ফিরোজ মুকুলকে খালেদা জিয়ার লগে লগে ঘুরঘুর করতে দেখা যাইতো। তবে সেই লোক কখনো নিজেরে বেস্টসেলার দাবি করার চেষ্টা করেননি। এখন ইংরেজি শিক্ষার বই লিখেও লেখকদের বেস্টসেলার হয়ে যেতে হচ্ছে। এইবছর কিছু টিভি উপস্থাপক, ইসলামি লোক, মোটিভেশনাল স্পিকার, হিরো আলম, সেলিব্রেটি ও নারীবাদীদের বই এই বাজারটা ধরতে পারছে। সামনের বছর তাদের বাজার আরেকটু বড় হবে কামনা করি। কিন্তু তাতে সাহিত্যের কিছু যায় আসে না। সাহিত্যের পাঠক মাত্রই জানেন, বইয়ের বাজারটা মূলত সাহিত্যের বাজার। যেইটা কখনো শাফল করে না। লেখক এবং সাহিত্যিকের মাঝখানে দাঁড়িয়ে থাকা দেয়ালটা এভাবেই প্রতিষ্ঠিত হয়ে আছে। একজন সাহিত্যিক চাইলেই যখন তখন নামকরা বøগার হইতে পারেন, সেলিব্রেটি ফেসবুকার হইতে পারেন, পপুলার বই লিখে বেচতে পারেন। কিন্তু একজন নামকরা বøগার, জনপ্রিয় ফেসবুকার, পপুলার বইয়ের লেখক চাইলেই সাহিত্যিক হইতে পারেন না। সাহিত্য একটা কমপ্লিট ডিসিপ্লিন, বারুদের ফুলকি জাতীয় কোনো ব্যাপার নয়। ফেসবুক থেকে




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]