• প্রচ্ছদ » » মমতা ব্যানার্জি মোদি বিরোধিতার সবচেয়ে বেশি গ্রহণযোগ্য মুখ!


মমতা ব্যানার্জি মোদি বিরোধিতার সবচেয়ে বেশি গ্রহণযোগ্য মুখ!

আমাদের নতুন সময় : 01/05/2021

বিপ্লব পাল : আর মাত্র ৪৮ ঘণ্টা। ২০২১ সালের ঐতিহাসিক বিধানসভার নির্বাচনের ফল পেয়ে যাচ্ছি আমরা। এক্সিটপোল বলছে, এই নির্বাচনের ফল প্রেডিক্ট করা যায় না। তৃণমূল ৭০ থেকে ২২০ পেতে পারে। বিজেপি ৬০ থেকে ২১০। ভোটযন্ত্র না খুললে বোঝা যাবে না। যদি দিদি জিতে যান- তাহলে পরবর্তী লোকসভাতে মোদি বিরোধি কোয়ালিশন তিনিই লিড করবেন। ২০২৪ সালে দিদি বনাম মোদির ধামাকা হবে। সুতরাং পশ্চিমবঙ্গের এই নির্বাচনে দিদি জিততে পারলে, দেশের রাজনীতিতে খেলা জমে যাবে। মোদি বিরোধীরা একজোট হওয়ার সুযোগ পাবে। আর যদি দিদি হারেন, বিজেপি ২০৩০ পর্যন্ত নিশ্চিত। কারণ বাংলা হচ্ছে, বিজেপি বিরোধিতা, মোদি বিরোধিতার ইন্টালেকচুয়াল এপিসেন্টার। মমতা ব্যানার্জি মোদি বিরোধিতার সব থেকে বেশি গ্রহণযোগ্য মুখ। সেটা ধ্বংস হলে, বিজেপি কার্যত বিরোধি শূন্য। সেক্ষেত্রে বিজেপির সব থেকে বড় সমস্যা হবে অন্তর্দ্ব›দ্ব। দিদি হারলে কংগ্রেসের হাত ধরতে বাধ্য হবেন এবং এটাও হতে পারে মুসলমান তোষণের রাজনৈতিক লাইন বাতিল করে, মোদি বিরোধী কোনো নতুন ধরনের জাতীয়তাবাদী লাইন খুলতে বাধ্য হবে কংগ্রেস। এতো কিছু মাখিয়ে দই করে দেওয়ার পরও যদি বিজেপি জিততেই থাকে, তাহলে বুঝতে হবে, ভারতের ৮০ শতাংশ হিন্দুদের রায় খুব পরিষ্কার যে, তারা শুধু সেই পার্টিকেই ভোট দেবে, যারা ভারতে ইসলামিক মৌলবাদের বাড়ন্তকে ঠেকাতে সক্ষম। সিপিএম সিপিএম থেকে গেলে-তাদের ভবিষ্যৎ শূন্য। কম সইফুদ্দিনের দেখানো পথে না এলে, তারা সুসির মতন প্রান্তিক পার্টি হয়ে যাবে। ফেসবুক থেকে




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]