• প্রচ্ছদ » » যে বিশ্বাস থেকে কর্ম উৎপন্ন হয় না, তা বিশ্বাস নয়!


যে বিশ্বাস থেকে কর্ম উৎপন্ন হয় না, তা বিশ্বাস নয়!

আমাদের নতুন সময় : 05/05/2021

ড. এমদাদুল হক : যদি কারও বিশ্বাস হয় যে, বট গাছের নিচে গুপ্তধন আছে, তবে সে তার বিশ্বাস নিয়ে বসে থাকবে না। সে রাতের বেলায় গোপনে খনন করবে, যেন কেউ দেখতে না পায়। দিনের বেলায় অন্য কাজে ব্যস্ত থাকলেও তার চিন্তাজগতে গুপ্তধন জাগ্রত থাকবে। খনন করতে করতে যদি কোনোদিন সে কলসির কানা দেখতে পায়, তবে তার বিশ্বাস আরও দৃঢ় হবে। তখন অন্য কাজে তার মন বসবে না। উদাস উদাস লাগবে। মানুষের সংস্পর্শ ভালো লাগবে না, কথা বলতে ইচ্ছে করবে না, খেতে ইচ্ছে করবে না। দিনের বেলায় নির্জনতা, নীরবতা, স্বল্পাহার আর রাতের বেলায় খনন- এই হবে তার নিত্য কর্ম। তার আচরণে এমন পরিবর্তন আসবে যে, লোকে হয়তো তাকে পাগল বলবে। তাই লোক সমাগম থেকে সে দূরে থাকবে। তবে সে যেখানেই থাকুক না কেন, রাতের নিঝুম নীরবতায় অব্যাহত রাখবে খনন কাজ। কলসির কানা যে দেখেছে, শেষ না দেখে সে ছাড়বে না। বিশ্বাসের গুপ্তধন তাকে উন্মত্ত করে রাখবে। নিমগ্ন করে রাখবে খনন কাজে। হয়তো সে একদিন সন্ধান পাবে গুপ্তধনের। সে ধনবান হবে, কিন্তু প্রকাশ করবে না। গুপ্তধনের অস্তিত্বে বিশ্বাস করলে এমন-ই তো হবার কথা।
কেউ যদি প্রকৃতই ঈশ্বরের অস্তিত্বে বিশ্বাস করতো, তবে তার অবস্থা কেমন হতো? কেউ যদি প্রকৃতই বিশ্বাস করতো যে মিথ্যাচার, সুদ, ঘুষ, প্রতারণা ও ভেজালের অপরাধে তাকে বিচারের সম্মুখীন হতে হবে, তবে কি আর বাংলাদেশে দুর্নীতি থাকতো? দুর্নীতি আছে। পদে পদে প্রতারণা ও ভেজাল আছে। সুতরাং, এটি প্রমাণিত যে, বিশ্বাসী নেই। বেশভ‚ষা দেখে আমরা যাদের বিশ্বাসী বলি, কার্যত তারা ধর্মব্যবসায়ী। এখানে সবাই সবাইকে ধোঁকা দিচ্ছে। বিশ্বাসের ধোঁকা। মুখে বলছে পরকালের অনন্ত জীবন- আর ডুবে আছে ইহকালের লালসায়। যে ব্যক্তি মুখে বলে ‘আমি বিশ্বাস করি, ওখানে গুপ্তধন আছে’, কিন্তু খনন করে না, সে আসলে গুপ্তধনের অস্তিত্বে বিশ্বাসই করে না। যে প্রকৃতই বিশ্বাস করে যে, তিনি প্রাণরগের চেয়েও নিকটে আছেন- সে কাবা কৈলাসে তাকে খুঁজে না। যে প্রকৃতই বিশ্বাস করে যে ‘ঈশ্বর সর্বময় ক্ষমতার অধিকারী’ সে ক্ষমতার পূজা করে না। যে বিশ্বাস থেকে কর্ম উৎপন্ন হয় না, তা বিশ্বাস নয়। মানুষ শুধু বিশ্বাস করে যে বিশ্বাস করে, আসলে কিছুই বিশ্বাস করে না। একেই বলে হিপোক্রেসি! স্রেফ হিপোক্রেসি! সমাজের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলার ভান। ফেসবুক থেকে




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]