• প্রচ্ছদ » প্রথম পাতা » [১]করোনা সংক্রমণ ছড়াচ্ছে গ্রামঞ্চলে, বেশিরভাগ রোগী নিম্ন আয়ের [২]এখনি সংক্রমণের লাগাম টানতে না পারলে চড়া মূল্য দিতে হতে পারে: বিশেষজ্ঞ মত


[১]করোনা সংক্রমণ ছড়াচ্ছে গ্রামঞ্চলে, বেশিরভাগ রোগী নিম্ন আয়ের [২]এখনি সংক্রমণের লাগাম টানতে না পারলে চড়া মূল্য দিতে হতে পারে: বিশেষজ্ঞ মত

আমাদের নতুন সময় : 18/06/2021

শিমুল মাহমুদ: [৩] এতো দিন করোনার ভয়ংকর থাবা দেখেছে রাজধানী ঢাকাসহ বিভাগীয় ও জেলা শহর। ভয়ংকর এ ভাইরাসে গ্রামঞ্চলে প্রতিদিনই বাড়ছে শনাক্ত ও মৃত্যু। তবুও মাস্ক ব্যবহার করছেন না বেশিরভাগ মানুষ। থেমে নেই হাটবাজার কিংবা চায়ের আড্ডা। [৪] রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী জানান, হাসপাতালে ভর্তি হওয়া রোগীদের ৪০ শতাংশ গ্রামাঞ্চলের এবং বেশিরভাগ মানুষেই নিন্ম আয়ের। প্রতিদিন যে হারে  সংক্রমণ বাড়ছে এভাবে চলতে থাকলে কিছুদিনের মধ্যে স্বাস্থ্য ব্যবস্থা ভেঙে পড়বে।
[৫] গতকাল এ হাসপাতালে করোনায় মারা গেছে আরো ১০ জন। ২০টি আইসিইউসহ ৩০৯ বেডের বিপরীতে চিকিৎসাধীন ছিলেন ৩৫৮ জন। তাদের মধ্যে রাজশাহীর ১৯৯ জন আর চাঁপাইনবাবগঞ্জের ৯৮ জন। তাছাড়া নাটোর ও নওগাঁর ছিলেন ২৪ জন করে।
[৬] খুলনা বিভাগের দশ জেলায় মৃত্যু হয়েছে আরো ১৮ জনের। শনাক্ত হয়েছে ৭২৫ জন। খুলনা হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. সুহাস রঞ্জন হালদার জানান, আক্রান্তদের বেশির গ্রামের নিন্ম আয়ের মানুষ। জটিল পর্যায়ে হাসপাতালে আসছে বেশিরভাগ রোগী।
[৭] সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (আইইডিসিআর) দেওয়া তথ্য বলছে, গ্রামাঞ্চলে চড়িয়ে পরা ভাইরাসের মূল উৎস হচ্ছে ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট একই সঙ্গে ঈদে শহর থেকে গ্রামে ফেরা মানুষ গুলোও।
[৮] বিএসএমএমইউ’র সাবেক উপাচার্য ও করোনা বিষয়ক জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটির সদস্য অধ্যাপক ডা. নজরুল ইসলাম বলেন, এখন আর কোথাও বাকি নেই যেখানে করোনা ভাইরাস পৌঁছায়নি। এখন গোটা বাংলাদেশে এক নাগারে সংক্রমণ বাড়তে থাকবে। স্বাস্থ্যবিভাগকেও সেভাবে প্রস্তুতি নিতে হবে। ননমেডিকেল লকডাউন দিয়ে এটাকে সামাল দেওয়া কঠিন হবে।
[৯] গত জুন মাসে প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন, সব জেলায় আইসিইউ ব্যবস্থ্যা করতে; সেটা মানা হয়নি। সেন্ট্রাল অক্সিজেন ব্যবস্থার বিষয়ে বলা হয়েছিলো সেটা অর্ধেকও হয়নি। ভারত থেকে অক্সিজেন আমদানী বন্ধ হয়ে গেছে। এরপর অক্সিজেন উৎপাদন বা আমদানী কি বেড়েছে? জেলা শহরে হাসপাতালে সক্ষমতা কতোটুকু বেড়েছে?
[১০] জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডা. বে-নজির আহমেদ বলেন, এখনি যদি সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণ করা না যায় এক দিকে যেমন গ্রামীন মানুষগুলোর অসুস্থ্যতা ও মৃত্যু ঝুঁকি বেড়ে যাবে। গ্রামে পর্যাপ্ত স্বাস্থ্য ব্যবস্থ্যা ও আক্রান্তদের পরিবারসহ আইসোলেশন নিশ্চিত করতে হবে। সম্পাদনা: শাহানুজ্জামান টিটু




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]