• প্রচ্ছদ » শেষ পাতা » [১]এলডিসি থেকে গ্র্যাজুয়েশনের পর শুধু তৈরি পোশাক খাত দিয়ে নতুন চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা বাংলাদেশের জন্য কঠিন হবে: মডার্ন ডিপ্লোমেসি


[১]এলডিসি থেকে গ্র্যাজুয়েশনের পর শুধু তৈরি পোশাক খাত দিয়ে নতুন চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা বাংলাদেশের জন্য কঠিন হবে: মডার্ন ডিপ্লোমেসি

আমাদের নতুন সময় : 15/07/2021

আসিফুজ্জামান পৃথিল: [২] ২০২৬ সালের মধ্যেই বাংলাদেশ এলডিসিভুক্ত দেশের তালিকা থেকে বের হয়ে যাবে। অসাধারণ আর্থ-সামাজিক উন্নতি বাংলাদেশকে এর যোগ্য করে গড়ে তুলেছে। এতে করে অবশ্য বেশ অনেকগুলো সুযোগসুবিধা থেকে বঞ্চিত হবে ঢাকা। বর্তমানে ৩টি সুবিধা পায় বাংলাদেশ- অগ্রাধিকার, উন্নয়ন সহায়তা এবং কারিগরি সাহায্য এবং জেনারেল সাপোর্ট। মডার্ন
[৩] এক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় ধাক্কা খেতে পারে তৈরি পোশাক খাত। বাংলাদেশি রপ্তানি পণ্যের ৪ পঞ্চমাংশই এই খাতের। বাংলাদেশের সব প্রধান বাজারেই এই খাত শুল্ক সুবিধা পায়। এলডিসি থেকে বের হলে বাংলাদেশি তৈরি পোশাক পণ্যকে ইউরোপীয় ইউনিয়নে ১২ আর কানাডায় ১৬ থেকে ১৮ শতাংশ শুল্ক দিতে হবে। যা অবশ্যই রপ্তানি বাজারের জন্য সমস্যা হয়ে দাঁড়াবে।
[৪] এসব সুবিধার বাইরে গিয়েও টিকে থাকতে চাইলে রপ্তানিখাতকে বহুমুখী করার বিকল্প নেই। বাংলাদেশ অবশ্য ইতোমধ্যেই ভারী শিল্পকারখানা গড়ে তুলতে একাধিক বড় অর্থনৈতিক অঞ্চল নিয়ে কাজ করছে। এসব অঞ্চলে ভারী শিল্প স্থাপনে বিদেশি বিনিয়োগ আনারও উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।
[৫] গ্র্যাজুয়েশন যেনো টেকসই হয়, সে ব্যাপারে বাংলাদেশকে অবশ্যই নজর দিতে হবে। ইতোমধ্যেই একটি গভীরসহ দুটি সমুদ্রবন্দর স্থাপন এবং এগুলোকে কেন্দ্র করে বিশাল আকারের ৩টি বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলেও নির্মাণকাজ চলছে। এগুলো শেষ হলে তা বাংলাদেশের জন্য খুলে দিতে পারে সফলতার দুয়ার। সম্পাদনা : মোহাম্মদ রকিব




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]