• প্রচ্ছদ » প্রথম পাতা » [১]৩ কোটি টাকার মিথ্যা চাঁদাবাজির মামলায় গ্রেপ্তার করা হয়েছিলো শেখ হাসিনাকে [২]মুক্তির দাবি জানিয়েছিলেন বেগম খালেদা জিয়া


[১]৩ কোটি টাকার মিথ্যা চাঁদাবাজির মামলায় গ্রেপ্তার করা হয়েছিলো শেখ হাসিনাকে [২]মুক্তির দাবি জানিয়েছিলেন বেগম খালেদা জিয়া

আমাদের নতুন সময় : 16/07/2021

বাশার নূরু: [৩] আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কারাবন্দি দিবস আজ। ২০০৭ সালের ১৬ জুলাই ফখরুদ্দীন আহমদের নেতৃত্বাধীন সেনা সমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকার তাকে ধানমন্ডি সুধাসদন বাসভবন থেকে গ্রেপ্তার করে। [৪] গ্রেপ্তারের আগে শেখ হাসিনা দেশবাসীর উদ্দেশে একটি খোলা চিঠি লেখেন। তিনি বলেন, আমাকে সরকার গ্রেফতার করে নিয়ে যাচ্ছে। কোথায় জানি না। আমি আপনাদের গণতান্ত্রিক অধিকার ও অর্থনৈতিক মুক্তির লক্ষ্যেই সারাজীবন সংগ্রাম করেছি। জীবনে কোনও অন্যায় করিনি। তারপরও মিথ্যা মামলা দেওয়া হয়েছে। আল্লাহ রাব্বুল আলামিন ও আপনারা দেশবাসীর ওপর আমার ভরসা। [৫] শেখ হাসিনা লেখেন, আমার প্রিয় দেশবাসী, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের কাছে আবেদন কখনও মনোবল হারাবেন না। অন্যায়ের প্রতিবাদ করবেন। যে যেভাবে আছেন, অন্যায়ের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াবেন। মাথা নত করবেন না। সত্যের জয় হবেই। আমি আছি আপনাদের সঙ্গে, আমৃত্যু থাকব। আমার ভাগ্যে যা-ই ঘটুক না কেন আপনারা বাংলার জনগণের অধিকার আদায়ের জন্য সংগ্রাম চালিয়ে যান। জয় জনগণের হবেই।
[৬] গ্রেফতারের পর বেশ কয়েকটি দুর্নীতির মামলা দেওয়া হয় এবং সংসদ ভবন চত্বরে স্থাপিত বিশেষ কারাগারে বন্দি রাখা হয় বঙ্গবন্ধুকন্যাকে।
[৭] আন্দোলের মুখে ৩৩১ দিনের কারাগারে থাকার পর ২০০৮ সালের ১১ জুন ৮ সপ্তাহের জামিনে মুক্তি পান শেখ হাসিনা। মুক্তি পেয়েই পর দিন উন্নত চিকিৎসার উদ্দেশে যুক্তরাষ্ট্রে যান তিনি। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায়ই তার অস্থায়ী জামিনের মেয়াদ কয়েক দফা বাড়ানো হয়।
[৮]শেখ হাসিনার মুক্তির দাবী জানিয়ে বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া বিবৃতিতে বলেছিলেন, শেখ হাসিনাকে মুক্ত রেখে তার বিরুদ্ধে মামলা পরিচালনায় আইনগত সুযোগ থাকলে তাকে অবিলম্বে মুক্তি দেওয়া উচিত। শেখ হাসিনাকে মুক্ত রেখে আইন পরিচালনা করা হলে পারস্পরিক অবিশ্বাস, সন্দেহ, সামাজিক উত্তেজনা এবং রাজনৈতিক আশংকা কমে আসবে।
[৯] শেখ হাসিনাকে যেভাবে গ্রেফতার করে আদালতে নিয়ে যাওয়া হয়েছে তাতে খালেদা জিয়া দুঃখ প্রকাশ করেন খালেদা জিয়া বলেন, শেখ হাসিনা একজন সাবেক প্রধানমন্ত্রী, জাতীয় নেতার কন্যা এবং দেশের সম্মানিত নাগরিক। তাতে বিবেকমান নাগরিকেরা আহত হয়েছেন। এর ফলে দেশে বিদেশেও সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হয়েছে।
[১০] অনেক বাধা পেরিয়ে ৬ নভেম্বর দেশে ফেরেন শেখ হাসিনা। দেশে ফিরলে তাকে স্থায়ী জামিন দেওয়া হয়।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]