করোনাকালের পারফরমেন্স: সরকার ৭৫, সাংবাদিকতা ৬৫

আমাদের নতুন সময় : 18/07/2021

নাঈমুল ইসলাম খান : [১] করোনা মহামারিকালে পারফরমেন্স নিয়ে সতর্কতা ও যত্নের সঙ্গে বিবেচনা করে আমার উপলব্ধি হয়েছে- বাংলাদেশে সাংবাদিকতার সফলতায় স্কোর হতে পারে ৬৫। একই রকম পুঙ্খানুপুঙ্খ বিশ্লেষণে সরকারকে স্কোর দিতে হচ্ছে ৭৫।
[২] সাংবাদিকতায় এমনিতেই অধিকাংশ ক্ষেত্রে প্রচণ্ড সময় স্বল্পতার চাপ নিয়ে কাজ করতে হয়। করোনাকালে সংক্রমণের ঝুঁকিতে চলাফেরায় অতিরিক্ত সতর্কতা ও সীমাবদ্ধতা সাংবাদিকতার কাজকে আরো চ্যালেঞ্জিং করে ফেলেছিলো, তাই সংবাদপত্রের স্কোর কিছুটা কম হয়েছে।
[৩] অচেনা অসুখ করোনায় বিধ্বংসী মহামারি পরিস্থিতিতে মানুষের স্বাভাবিক চিকিৎসা সুবিধা এবং জনস্বাস্থ্যের চলমান সকল দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি উদ্ভূত করোনা সংক্রমণ পরিস্থিতি মোকাবেলায় গেরিলা কৌশলে অকল্পনীয় বিশাল কর্মযজ্ঞ চালাতে হয়েছে। সাংবাদিকতার চেয়ে সরকারের ওপর এই চাপটা অনেক অনেক গুণ বেশি। সেই অভূতপূর্ব এবং বহুমাত্রিক চ্যালেঞ্জেস-এর সঙ্গে দক্ষ জনবলের বিপুল ঘাটতি সত্ত্বেও সরকারের হাজার হাজার কর্মকর্তা, কর্মী এবং স্বেচ্ছাসেবী যেভাবে অপ্রত্যাশিত ভয়াবহতা সামাল দিতে সমর্থ হয়েছেন, সেইজন্য সাংবাদিকতার তুলনায় সরকারের স্কোর কিছু বেশি।
[৪] সাংবাদিকতার ক্ষেত্রে অনেকেরই, বিশেষ করে প্রতিষ্ঠিত সংবাদপত্রেও অনেক সাংবাদিক তথ্যানুসন্ধানে ইচ্ছায় অথবা অনিচ্ছায় দূষণীয় মাত্রায় কম্প্রোমাইজ করেছেন অর্থাৎ তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহে যত্নশীল ছিলেন না অথবা অনেক তথ্য-উপাত্ত উপস্থাপনে ডাবল চেক অথবা ক্রস চেক করার দায়িত্ব পালন করেননি। সাংবাদিকতার সাধারণ সময়েও এ ধরনের ভুল-ভ্রান্তি হয়। কিন্তু করোনাকালে এই ভুল-ভ্রান্তি বেশ বেড়েছে। এর ফলে সাংবাদিকতায় দায়িত্বশীলতার জায়গায় উল্লেখযোগ্য ঘাটতি হয়েছে। সাংবাদিকতার স্কোর কমার এটি অন্যতম কারণ।
[৫] সরকারের দায়িত্ব পালনেও বেশ কিছু ক্ষেত্রে অনিয়ম ও দুর্নীতি ঘটেছে যা এড়াতে পারলে, আমি সরকারকে স্কোর দিতাম ৮০। সরকারের সবচেয়ে বড় দুর্বলতা আমার কাছে মনে হয়েছে বেশ কিছু ক্ষেত্রে সমন্বয়ের




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]