প্রকাশিত: Tue, Jan 24, 2023 3:38 PM
আপডেট: Wed, Feb 8, 2023 4:02 AM

কে দিলো ‘বোসন’ কণার নাম?

রউফুল আলম

বিজ্ঞানী পল ডিরাককে গণ্য হয় নিউটনের পর সবচেয়ে মেধাবী ব্রিটিশ গণিতবিদ এবং ফিজিসিস্ট হিসেবে। তার বিখ্যাত উদ্ভাবন হলো ‘এন্টিম্যাটার’। তিনি এই এন্টিম্যাটারের অস্তিত্বের কথা গাণিতিকভাবে দাবি করেছিলেন। তার দাবির কয়েক বছর পর, পরীক্ষার মাধ্যমে এন্টিম্যাটারের অস্তিত্বের প্রমাণ মেলে। পল ডিরাকের বিষয়ে আমার মন্তব্যÑতিনি হলেন আইনস্টাইনবিহীন পৃথিবীর আইনস্টাইন। সাইন্টিফিক প্রফেট। ডিরাক তার কাজের জন্য নোবেল মুকুট পরেছিলেন মাত্র একত্রিশ বছর বয়সে। যাইহোক, এই ডিরাক ছাব্বিশ বছর বয়সে জগৎখ্যাত এক বই লিখলেনÑপ্রিন্সিপলস অব কোয়ান্টাম মেকানিক্স।

এই বইটিতে তিনিই প্রথম দুটি সাব-এটমিক কণার নাম দেনÑবোসন এবং ফার্মিয়ন; বাঙালি বিজ্ঞানী সত্যেন বোস এবং ইতালিয়ান বিজ্ঞানী এনরিকো ফার্মির নামানুসারে। ডিরাকের দেওয়া সেই নাম গ্রহণ করেছিলো সারা দুনিয়া। ১৯৫৪ সালে, বোসের আমন্ত্রণে ডিরাক পৌঁছলেন কলকাতায়। ১৯৫৮ সালে এই খ্যাতনামা বিজ্ঞানীর সুপারিশে, বোসকে রয়েল সোসাইটির ফেলো (ঋজঝ) নির্বাচিত করা হয়। বোস নেই, কিন্তু ‘বোসন কণায়’ (ইড়ংড়হ চধৎঃরপষব) বেঁচে থাকবেন তিনি। এজন্যই আমি বলি, মানুষ বাঁচে তার কর্মে, আয়ুতে বাঁচে কচ্ছপ। লেখক: গবেষক। ফেসবুক থেকে