প্রকাশিত: Mon, Apr 1, 2024 1:31 PM
আপডেট: Thu, Jul 25, 2024 7:36 AM

[১]বুয়েটে ছাত্র রাজনীতি বন্ধের নামে জঙ্গীবাদের কারখানা তৈরি হচ্ছে : ওবায়দুল কাদের

এম এম লিংকন: [২] বুয়েটে ছাত্র রাজনীতি বন্ধের জন্য শিক্ষার্থীদের আন্দোলন প্রসঙ্গে এমন মন্তব্য করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, এ-ই আন্দোলনের বিষয়টি আমরা খতিয়ে দেখছি। এরকম কিছু পাওয়া গেলে সরকারকে অ্যাকশনে যেতে হবে। 

[৩] উপজেলা নির্বাচনে এমপিদের প্রভাব না খাটানোর জন্য চট্টগ্রাম বিভাগীয় নেতাদের নির্দেশ দেন তিনি। 

[৪] এছাড়া এ সময় তিনি আরও বলেন, বঙ্গবন্ধু ছাড়া স্বাধীনতা ঘোষণা করার অধিকার কারও ছিলো না।  

[৫] রোববার রাজধানীর তেজগাঁওয়ে ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগ অফিসে চট্টগ্রাম বিভাগীয় নেতাদের সঙ্গে আলোচনা সভায় এ মন্তব্য করেন তিনি।

[৬] সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন,বুয়েটে সেদিন কোনও রাজনৈতিক কর্মসূচি ছিল না। আর আমি রাজনীতি করি বলে বুয়েটে যেতে পারবো না এটা কোন ধরনের আইন? কোন ধরনের নিয়ম? 

[৭]  সেতুমন্ত্রী বলেন, বিশ্বজিৎ হত্যার বিচার করতে গিয়ে আমাদের আমাদের অনেক কর্মী দণ্ডিত হয়েছে। বুয়েটের আবরার হত্যাকাণ্ডে আমরা কাউকে ছাড় দেইনি। শেখ হাসিনা কাউকে ছাড় দেননি ।

[৮] আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, উপজেলা নির্বাচনে সম্পূর্ণভাবে প্রশাসন কোনও প্রকার  হস্তক্ষেপ করতে পারবে না। আমরা এমপি মন্ত্রী সাহেবরা যদি হস্তক্ষেপ থেকে বিরত  থাকি তাহলে বিনা প্রতীকে নির্বাচন করার যে উদ্দেশ্য নেত্রী করেছেন তা স্বার্থক হবে। জনগণ যাকে ইচ্ছা নির্বাচিত করবে। নির্বাচন কমিশন স্বাধীন, যদি কোনও অনিয়ম হয় তারা ব্যবস্থা নেবে। 

[৯] স্বাধীনতার ৫৩ বছর পরও স্বাধীনতার ঘোষক নিয়ে বিতর্ক চলছে অভিযোগ তুলে ওবায়দুল কাদের বলেন, তাহলে এম এ মান্নান, সন্দীপ এরাও তো স্বাধীনতার ঘোষক! তারপরও বড় কথা এ ঘোষণার বৈধ অধিকার কার ছিল? সে ম্যান্ডেট ৭০এর  নির্বাচনে জনগণ দিয়েছিল বঙ্গবন্ধুকে। বঙ্গবন্ধু আমাদের স্বাধীনতার লেগ্যাসি। বঙ্গবন্ধুর পর আমাদেন অর্থনৈতিক মুক্তি সংগ্রামের লেগ্যাসি হিসেবে তার কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এগিয়ে যাচ্ছি। 

[১০] বিএনপির সব ইস্যুই মার খেয়েছে ভোটে পরাজিত হয়ে মন্তব্য করে সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, এখন তাদের ইস্যু ভারত বিরোধিতা।  এন্টি ইন্ডিয়া ফোভিয়া তৈরি করার ইস্যু খুঁজে নিয়েছে।

[১১] বিএনপি যখন ক্ষমতা ছেড়ে যায় তখন বাংলাদেশের রিজার্ভ ছিল সাড়ে তিন বিলিয়ন ডলার উল্লেখ করে তিনি বলেন, যখন রিজার্ভ ২১ বিলিয়ন ডলার অতিক্রম করেছে, ঈদ উপলক্ষ্যে সে রিজার্ভ  আরও বাড়বে এটাই স্বাভাবিক। বিএনপি না জেনে শুনেই মিথ্যাচার ও অপপ্রচার করছে। 

 [১২] আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোশারফ হোসেনের সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন, দলের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডক্টর হাসান মাহমুদ, মাহবুব উল আলম হানিফ, ডাক্তার দীপু মনি, সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন সহ চট্টগ্রাম বিভাগের আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ।সম্পাদনা: সমর চক্রবর্তী