সম্পূর্ণ নিউজ
Md. Alal Hossain
9 months ago
উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণ-পরবর্তী বাণিজ্য সুবিধাদি অব্যাহত রাখতে ইইউ’র প্রতি অর্থমন্ত্রীর আহ্বান
Md. Alal Hossain
অনলাইন ডেস্ক

সোহেল রহমান : স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশের শ্রেণিতে উত্তরণের পরও বাংলাদেশের জন্য বাণিজ্য ক্ষেত্রে প্রদত্ত অগ্রাধিকার সুবিধাদি অব্যাহত রাখার জন্য ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ)-এর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। 

বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে বাংলাদেশে নিযুক্ত ইউরোপীয় ইউনিয়ন-এর নতুন রাষ্ট্রদূত চার্লস হোয়াইলি’র সঙ্গে মত বিনিময়কালে তিনি এ আহবান জানান।

অর্থমন্ত্রী বলেন, ইউরোপীয় ইউনিয়ন সমন্বিতভাবে বাংলাদেশের রপ্তানি পণ্যের সর্ববৃহৎ গন্তব্য। বাংলাদেশ বিনিয়োগের অন্যতম আকর্ষনীয় স্থান। বাংলাদেশ ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের মধ্যে বিদ্যমান বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক অব্যাহতভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে এবং তারা বাংলাদেশের উন্নয়নের অন্যতম আস্থাশীল অংশীদারে পরিণত হয়েছে। বাংলাদেশের সঙ্গে তাদের এ সম্পর্ক আগামী দিনগুলোতে আরো বৃদ্ধি পাবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি। 

ইউরোপীয় ইউনিয়ন-এর নতুন রাষ্ট্রদূত চার্লস হোয়াইলি বলেন, বিভিন্ন খাতে বাংলাদেশের প্রতি ইইউ-এর সমর্থন ও সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে। 

বাংলাদেশের উন্নয়নের প্রশংসা করে তিনি বলেন, ২০০৫ সাল থেকে ২০০৯ সাল পর্যন্ত আমি বাংলাদেশে ইউরোপীয় ইউনিয়ন-এর পলিটিক্যাল, ইকোনোমিক, ট্রেড, প্রেস অ্যান্ড ইনফরমেশন বিভাগের প্রধান থাকাকালীন সময়ে তখনকার বাংলাদেশের তুলনায় বর্তমান বাংলাদেশের উন্নয়ন আমাকে অভিভূত করেছে।

অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে জাতিসংঘের আবাসিক সমন্বয়ক মিয়া সেপ্পো’র বিদায়ী সাক্ষাৎ 

ইউরোপীয় ইউনিয়ন-এর নতুন রাষ্ট্রদূত ছাড়াও বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে জাতিসংঘের আবাসিক সমন্বয়ক মিয়া সেপ্পো অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে তাঁর বিদায়ী সাক্ষাৎ করেন। এ সময়ে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অগ্রগতি, কোভিডকালীন অর্থনীতি ও পুনরুদ্ধার, কর্মসংস্থান, নারীর উন্নয়ন, ক্ষমতায়ন ও সমতা অর্জনসহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়।

জাতিসংঘের আবাসিক সমন্বয়ক-এর সঙ্গে মত বিনিময়কালে অর্থমন্ত্রী বলেন, আমাদের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আজীবনের স্বপ্ন ছিল একটি দারিদ্র্য ও শোষণমুক্ত সমৃদ্ধ সোনার বাংলাদেশ গড়ে তোলা। জাতির পিতার সেই অর্থনৈতিক দর্শন অনুসরণ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দৃঢ় নেতৃত্বে গত এক দশকে গড়ে ৭.৪% অভূতপূর্ব অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি অর্জিত হয়েছে। এমন কী অপ্রত্যাশিত অভিঘাত কোভিড-১৯ মহামারীকালে গত বছর যেখানে বৈশ্বিক অর্থনীতি ৩% সংকুচিত হয়েছে, এমন ক্রান্তিকালেও বেশ কয়েকটি আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠানের জরিপ অনুযায়ী বাংলাদেশ শীর্ষ পাঁচটি সহনশীল অর্থনীতির মধ্যে রয়েছে। অতি সম্প্রতি অনুষ্ঠিত জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদ সভার টেকসই উন্নয়নে আন্তর্জাতিক সম্মেলন ২০২১-এ আমাদের উন্নয়ন প্রচেষ্টাকে স্বীকৃতি দিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে এসডিজি প্রগ্রেস অ্যাওয়ার্ডে ভূষিত করেছে।

বাংলাদেশের অগ্রগতির পথে বাংলাদেশকে তার অভিষ্ট লক্ষ্যে পৌঁছাতে জাতিসংঘ বরাবরের মত সবসময় সহযোগী হিসাবে কাজ করবেÑ এমন আশাবাদ ব্যক্ত কওে অর্থমন্ত্রী বলেন, আগামী ২০৩০ সালের মধ্যে বাংলাদেশ ক্ষুধামুক্ত ও দারিদ্রমুক্ত হবে।

জাতিসংঘের আবাসিক সমন্বয়ক মিয়া সেপ্পো বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অগ্রগতি, নারীর কর্মস্থান ও নারী ক্ষমতায়নের প্রশংসা করে বলেন, আগামীতে বাংলাদেশের সঙ্গে জাতিসংঘের বিদ্যমান বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক আরো দৃঢ় হবে। 

বাংলাদেশের সঙ্গে জাতিসংঘের দীর্ঘ কূটনৈতিক সুসম্পর্কের ধারাবাহিকতা উল্লেখ করে তিনি বলেন, জাতিসংঘ বাংলাদেশে নারী উন্নয়ন, নারীর ক্ষমতায়ন ও আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে। বাংলাদেশের ৮ম পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনা এবং ‘টেকসই উন্নয়ন লক্ষমাত্রা’ (এসডিজি) অর্জনে জাতিসংঘ সহযোগিতা অব্যাহত রাখবে। 


সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ
মিতু হত্যা: সাবেক এসপি বাবুল আক্তারের করা মামলা পুনঃতদন্তের নির্দেশ আদালতের
ইস্ট বেঙ্গল রেজিমেন্টের ১৬তম ‘কর্নেল অব দি রেজিমেন্ট’ হিসেবে অভিষিক্ত হলেন সেনাবাহিনী প্রধান
অনুমোদের পর করোনার ট্যাবলেট দেশের বাজারে, মূল্য ৭০ টাকা
বিএনপির রাজনৈতিক ভবিষ্যৎ নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সংশয়
[১]এসকে সিনহাসহ ১১ জনের মামলার রায় আজ
ফেনীতে একাত্তরের গণহত্যা ও বধ্যভূমির ওপর নির্মিত ‘গোলপোস্ট’ মঞ্চস্থ
বীর টাওয়ার,
১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা),
ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে )
সম্পাদক: নাসিমা খান মন্টি
চেয়ারম্যান: নাঈমুল ইসলাম খান
পরিচালক: মো. কামরুল হুদা
© ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | Amader Shomoy Media Group.